যশোরে ডিবি এসআইয়ের পিস্তল ‘খোয়া’

আপডেট: 01:45:06 12/09/2017



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) এসআই মুরাদ হোসেন তার নামে ইস্যু করা সরকারি পিস্তল ও গুলি খুইয়েছেন।
৯ সেপ্টেম্বর রাতে তার বাসার গ্রিল কেটে চোরেরা পিস্তল-গুলি নিয়ে যায় বলে কোতয়ালী থানায় পরদিন রাতে রুজু করা মামলায় অভিযোগ করেছেন এসআই মুরাদ। তবে ১০ সেপ্টেম্বর দিনের বেলা এ সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে ডিবি কর্মকর্তারা কিছুই জানেন না বলে গণমাধ্যমকে বলেছিলেন।
এসআই মুরাদ হোসেন থানায় রুজু করা এজাহারে উল্লেখ করেছেন, শহরের পুরাতন কসবা বিমানবন্দর সড়কের এসএইচ বিল্ডার্সের নিমার্ণাধীন বাড়িতে ভাড়া থাকেন তিনি। ঈদুল আজহা উপলক্ষে তার পরিবারের সদস্যরা বাসায় ছিলেন না। গত ৯ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার দিকে তিনি বাড়িতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন ১০ সেপ্টেম্বর সকাল নয়টার দিকে ঘুম থেকে উঠে দেখতে পান ঘরের মধ্যে বিভিন্ন জিনিসপত্র এলোমেলো অবস্থায় পড়ে আছে। তার খাটের ওপর রাখা সরকারি পিস্তলটি (৭ পয়েন্ট ৬২ অটোমেটিক) নেই। পিস্তলের মধ্যে একটি ম্যাগজিন, যাতে আট রাউন্ড গুলি ভর্তি ছিল, সেটিও নেই। পড়ে আছে শুধু পিস্তলের কভার। অন্য একটি ম্যাগজিনে রাখা আট রাউন্ড গুলি অবশ্য ঘরেই ছিল।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ঘুম থেকে জেগে তিনি দেখতে পান, ঘরের জানালার শিক কাটা। ঘরের মধ্যে আলমারি ও লকার ভাঙা। সেখানে রাখা নগদ সাড়ে ৪০ হাজার টাকা এবং সোনার গয়না নেই। অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা জানালার শিক কেটে ঘরের মধ্যে ঢুকে তাকে চেতনানাশক স্প্রে করতে পারে বলে তিনি মনে করছেন।
‘অনেক খোঁজখুজি করে আমি হারিয়ে যাওয়া সরকারি পিস্তল, গুলি, সোনার গয়না ও টাকা পাইনি। একই সঙ্গে খোয়া গেছে বাসায় রক্ষিত মোট এক লাখ সাড়ে ১৮ হাজার টাকার মালামাল,’ উল্লেখ করা হয় এজাহারে।
এদিকে, ডিবি কর্মকর্তা মুরাদ হোসেন তার নামে ইস্যু করা পিস্তল খুইয়েছেন বলে রোববারই পুলিশ কর্মকর্তাদের কানাঘুষা করতে শোনা যায়। এক কান দুই কান হয়ে খবরটি পৌঁছে যায় গণমাধ্যমকর্মীদের কাছেও। ওই দিনই ডিবির ওসি মনিরুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এমন কোনো ঘটনা আমার জানা নেই।’
ডিবির আরেক কর্মকর্তা সৌমেন দাসও ওই দিন বলেন, ‘আমি এমন ঘটনা শুনিনি।’
প্রসঙ্গত, যে ভবনে এসআই মুরাদ হোসেন বসবাস করেন, তার অবস্থান পুলিশ সুপারের বাংলোর প্রাচীর-ঘেঁষা। পুলিশ সুপারের বাংলোর ফটকে সারা রাত সশস্ত্র প্রহরা থাকে। ওই ভবনটির একটি ফ্ল্যাট এসআই মুরাদ অল্প কিছুদিন আগে ভাড়া নিয়েছেন।

আরও পড়ুন