যশোরে দুই হাতুড়ে ডাক্তারের জেল-জরিমানা

আপডেট: 02:58:52 21/02/2018



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরে শহরের বঙ্গবাজারের দ্বিতীয় তলায় ‘পাইলস কিউর’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানের কথিত ডাক্তার আব্দুর রবকে পাঁচ দিনের জেল ও ২০০ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এই ব্যক্তি নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত রোগী দেখে আসছিলেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী নাজিব হাসান মঙ্গলবার দুপুরে এই দণ্ডাদেশ দেন।
প্রায় একই সময় শহরের ধর্মতলায় ‘ইতু ডেন্টাল কেয়ার’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানের মালিক ফয়জুল ইসলামকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের পেশকার মো. জালাল উদ্দিন সুবর্ণভূমিকে জানান, শহরের গাড়িখানায় বঙ্গবাজারের দ্বিতীয় তলায় আব্দুর রব নামে এক ব্যক্তি নিজেকে পাইলস রোগ বিশেষজ্ঞ ও এমডি দাবি করে রোগী দেখে আসছেন। কিন্তু তিনি একজন হাতুড়ে। তার অ্যাকাডেমিক কোনো সার্টিফিকেট নেই। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী নাজিব হাসান কথিত ডাক্তার আব্দুর রবকে আটক করে ২০০৯ সালের জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৫২ ধারায় পাঁচ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং ২০০ টাকা জরিমানা করেন।
অন্যদিকে, ভ্রাম্যমাণ আদালত শহরের ধর্মতলায় ইতু ডেন্টাল কেয়ারে অভিযানকালে দেখতে পান, প্রতিষ্ঠানটির মালিক ফয়জুল ইসলাম একই অপরাধ করছেন। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেএম আবু নওশাদ প্রতিষ্ঠানটির মালিক ফজলুল ইসলামকে একই আইনের একই ধারায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানকালে সিভিল সার্জন অফিসের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার মো. তহিদুল ইসলাম ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন