যশোরে পৃথক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত

আপডেট: 01:54:36 03/12/2017



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর সেনানিবাসের কাছে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় মঙ্গল গাজি (৮৫) ও আব্দুর রহিম (৫৫) নামে দুই ব্যক্তি মারা গেছেন। এসময় মাসুদুর রহমান নামে এক ঠিকাদার গুরুতর আহত হন।
দুর্ঘটনা দুটি ঘটেছে রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এবং বেলা ১১টার দিকে যশোর-ঝিনাইদহ সড়কে সেনানিবাসের কাছে শানতলায়।
নিহত মঙ্গল গাজি শহরতলির শানতলা এলাকার দেনরুল গাজির ছেলে; আব্দুর রহিম ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার পাশে শুকুর আলীর ছেলে। আহত মাসুদুর রহমান মহেশপুরের মিনহাজুল ইসলামের ছেলে।
নিহত মঙ্গল গাজির ছেলে জালাল হোসেন সুবর্ণভূমিকে জানান, তার বাবা ঠিকাদারি করতেন। রোববার সকালে বাসা থেকে বেরিয়ে সেলুনে শেভ করতে যাচ্ছিলেন। এসময় একটি মাইক্রোবাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে দুর্ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।
অন্য দুর্ঘটনায় হতাহতদের মধ্যে মাসুদুর রহমান ঠিকাদার, আর আব্দুর রহিম টেইলার্স মাস্টার। মাসুদুর রহমানের চাচাতো ভাই আনারুল সুবর্ণভূমিকে জানান, মাসুদুর ও আব্দুর রহমান দুইজন বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে চেপে যশোরে আসছিলেন। যশোর সেনানিবাসের কাছে শানতলায় বিপরীতমুখি একটি ট্রাক তাদের ধাক্কা দেয়। এতে তারা মাটিতে পড়ে যান। দুর্ঘটনাস্থলেই মারা যান আব্দুর রহিম; গুরুতর আহত হন মাসুদুর। খবর পেয়ে পুলিশ হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।
জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার এম আব্দুর রশিদ সুবর্ণভূমিকে বলেন, ‘হাসপাতালে আনার আগেই মঙ্গল গাজি ও আব্দুর রহিম মারা গেছেন। আহত মাসুদুর রহমানের অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। তার ডান চোখ ও মাথায় প্রচণ্ড আঘাত লেগেছে।’
কোতয়ালী থানার এসআই হাবিবুর রহমান সুবর্ণভূমিকে বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনার খবর শুনে শানতলায় গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে আনি।’

আরও পড়ুন