যশোরে অশোক সেন স্মরণানুষ্ঠান

আপডেট: 06:47:23 06/01/2019



img

যশোর অফিস : ‘অশোক সেন বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা করতেন। তিনি ছিলেন নির্লোভ-নিমোহ। আর্থিক অভাব থাকলেও অসৎ পন্থায় টাকা উপার্জন করেননি। সাংবাদিকতা জীবনে অন্যায়ের কাছে তিনি মাথা নত করেননি। মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েও সনদপত্র নেননি। তার দেশপ্রেমের আদর্শ অনুসরণ করলে তার প্রতি যথাযথ সম্মান দেখানো হবে।’
প্রথম আলোর যশোর অফিসের নিজস্ব প্রতিবেদক অশোক সেনের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বক্তারা তার সম্বন্ধে এসব কথা বলেছেন।
রোববার বিকেলে প্রথম আলো বন্ধুসভার উদ্যোগে পত্রিকাটির যশোর আঞ্চলিক কার্যালয়ে অশোক সেন স্মরণানুষ্ঠান হয়। ওই অনুষ্ঠানে যশোরের রাজনীতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ডা. কাজী রবিউল হককেও স্মরণ করা হয়।
এই দুই ব্যক্তিত্ব স্মরণে অনুষ্ঠানের শুরুতে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এর আগে প্রয়াত অশোক সেনের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সুরধুনী সংগীত নিকেতনের সভাপতি হারুন-অর-রশীদ, ডা. আবদুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের অধ্যক্ষ জেএম ইকবাল হোসেন, প্রেসক্লাব যশোরের যুগ্ম সম্পাদক এইচআর তুহিন, প্রথম আলোর যশোর প্রতিনিধি মনিরুল ইসলাম ও মাসুদ আলম, যশোর বন্ধুসভার সহসভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখ।
অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন বন্ধুসভার সাধারণ সম্পাদক মুরাদ হোসেন।
ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে ২০১০ সালের ৩ জানুয়ারি অশোক সেন মারা যান। আর লিভার ক্যানসারে আক্রান্ত ডা. কাজী রবিউল হকের মৃত্যু হয় গতকাল শনিবার।
সভায় বলা হয়, কাজী রবিউল হক আর অশোক সেনের কর্মজীবন এক সুতোয় গাঁথা। রবিউল হক ছিলেন অশোক সেনে গুরুস্থানীয় রাজনীতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। অশোক সেন হেঁটেছেন রবিউল হকের দেখানো পথে।

আরও পড়ুন