যশোর জিলা স্কুলের ৪৩ শিক্ষককে ‘হুমকি’

আপডেট: 02:49:51 12/05/2018



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদার দাবিতে যশোর জিলা স্কুলের ৪৩ শিক্ষককে পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টির নামে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। ঘটনার পর থেকে আতঙ্কে রয়েছেন শিক্ষকরা।
আজ শিক্ষকরা বিষয়টি প্রধান শিক্ষককে জানালে তিনি বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবহিত করেন। দুপুরে এই রিপোর্ট লেখার সময় স্কুলের পক্ষ থেকে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল।
জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক একেএম গোলাম আযম জানান, গত বৃহস্পতিবার সকালে তিনি বাসযোগে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। এদিন সকাল পৌনে দশটার দিকে জয়েন্ট সেক্রেটারি মাধ্যমিক পরিচয়ে ০১৬৩২৩৭৫৯৩০ নাম্বার থেকে তার কাছে একজন ফোন করে স্কুলের বিষয়ে কথা বলতে চান। তিনি ছুটিতে আছেন জানালে ফোনকারী ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের মোবাইল নাম্বার দিতে বলেন। তিনি ওই ব্যক্তিকে মোবাইল নাম্বার এসএমএস করেন এবং ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে এ বিষয়ে অবহিত করেন। এরপর ওই ব্যক্তি একই পরিচয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের কাছে ফোন দিয়ে শিক্ষকদের মোবাইল নাম্বার ও বেতনের তথ্য নেন।
প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘এরপর শুক্রবার সকালে সহকারী শিক্ষক নজরুল ইসলাম খান প্রথম জানান যে, চাঁদার দাবিতে তাকে হুমকি দেওয়া হয়েছে। এরপর আরো অনেক শিক্ষক বিষয়টি আমাকে অবহিত করেন। আজ সকালে শিক্ষকরা স্কুলে এলে জানতে পারি ০১৬৪০৮৯৩৮৫৫ ও ০১৯০২৪১৫৬৭৬ নাম্বার থেকে মোট ৪৩ জন শিক্ষককে হুমকি দেওয়া হয়েছে।’
এদিকে হুমকি পাওয়া শিক্ষকরা জানিয়েছেন, ফোনে পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য বিপ্লবকুমার ও শিকদার মহিউদ্দিন নামে চাঁদা চাওয়া হয়। চাঁদা না দিলে হত্যা ও পরিবারের সদস্যদের ক্ষতি করার হুমকিও দেওয়া হয়। যে কারণে তারা চরম আতঙ্কে রয়েছেন।
যশোর জিলা স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জেলা প্রশাসক। প্রধান শিক্ষক বলছেন, ইতিমধ্যে সভাপতিকে জানানো হয়েছে। ঘটনার ব্যাপারে থানায় জিডি করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন