যান্ত্রিক ত্রুটি পিছু ছাড়ছে না মোচিকের, ক্ষুব্ধ চাষি

আপডেট: 06:43:42 02/01/2018



img

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কালীগঞ্জে মোবারকগঞ্জ সুগারমিলে চলতি মাড়াই মৌসুমে উদ্বোধনের পর থেকে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বেশিরভাগ সময়ই আখ মাড়াই বন্ধ থেকেছে। এতে আখচাষিদের মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।
মিলের এই যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য কৃষক ও শ্রমিকরা জিএম (কারখানা) মাহমুদুল হককে দায়ী করছেন। শ্রমিক ও আখচাষিদের দাবি, জিএম (কারখানা) মাহমুদুল হকের গাফিলতি ও টারবাইনে অদক্ষ কর্মী থাকায় যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়। এছাড়া চলতি মাড়াই মৌসুমের আগে পুনঃমেরামতের জন্য বরাদ্দ প্রায় কোটি টাকা নয়ছয় হয়েছে। গত ১ ডিসেম্বর বিকেলে মিলটির ২০১৭-১৮ মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধন করা হয়।
এদিকে, সবশেষ গত রোববার রাত থেকে মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত টানা দুইদিন কারখানা বন্ধের কারণে মিলগেটে কৃষকদের আনা আখ ওজন বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফলে মিলগেটে শত শত কৃষক তাদের আখ নিয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন। মঙ্গলবার বিকেলে কৃষকরা তাদের আখ ওজনের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করে। এসময় চাপের মুখে মিল কর্তৃপক্ষ আখ ওজন করে কিনতে বাধ্য হয়।
সুগারমিল সূত্র জানায়, চলতি আখ মাড়াই মৌসুম উদ্বোধনের একদিন পর ২ ডিসেম্বর শনিবার বিকেল চারটা থেকে মিলহাউজ টারবাইনে সমস্যা দেখা দেয়। ফলে একটানা প্রায় ৪০ ঘণ্টা বন্ধ থাকে উদ্বোধন। মেরামত করে আবার আখ মাড়াই শুরু করা হয়। এরপর থেমে থেমে চলতে থাকে আখ মাড়াই।
এদিকে, ছোট যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে প্রায়ই ১-২ ঘণ্টা আখ মাড়াই বন্ধ থাকে। সবশেষ গত রোববার দিবাগত রাতে মিলের টারবাইন ফের বন্ধ হয়ে যায়। ফলে আখ মাড়াই করে যে রস সংগ্রহ করা হয়েছিল সেগুলো নষ্ট হয়ে যাবে। এতে সুগারমিলের প্রায় অর্ধকোটি টাকা ক্ষতি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন শ্রমিক অভিযোগ করেন, বর্তমান কারখানা ব্যবস্থাপক মাহমুদুল হকের গাফিলতির কারণে এ সমস্যা হচ্ছে। এছাড়াও টারবাইনে অদক্ষ কর্মী থাকায় তারা ঠিক মতো কাজ করতে পারেন না এবং যন্ত্রাংশ মেরামত কিংবা সেটআপ করতেও পারে না।
শরিফুল ইসলাম নামে এক আখচাষি জানান, আখ কেটে রোদে ফেলে রাখলে শুকিয়ে যায়। মিল বন্ধ রাখলে তো সমস্যা আরো বেশি হয়। এতে আমাদের অনেক লোকসান হয়। প্রতিবছরই এমন ঘটনা ঘটে। এরকম চলতে থাকলে আর আখচাষ করবো না। 
মোবারকগঞ্জ সুগারমিল শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক কবির হোসেন বলেন, ‘জিএম (কারখানা) মাহমুদুল হকের গাফিলতির কারণে প্রায়ই যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিচ্ছে। এতে আখচাষিদের প্রচুর লোকসান হচ্ছে। প্রায়ই যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে আখ মাড়াই বন্ধ হওয়ায় মিলের শ্রমিক ও আখচাষিরা জিএম (কারখানা) মাহমুদুল হককে অপসারণের দাবি জানিয়েছি।’
এসব বিষয়ে মোবারকগঞ্জ সুগারমিলের কারখানা ব্যবস্থাপক মাহমুদুল হক প্রথমে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান। পরে তিনি মিলের ব্যবস্থাপকের সঙ্গে কথা বলতে। এরপর তিনি বলেন, ‘টারবাইনে সমস্যার কারণে আখ মাড়াই বন্ধ আছে। মঙ্গলবার বিকেলে আখ মাড়াই শুরু হবে।’
মোবারকগঞ্জ সুগারমিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক দেলোয়ার হোসেন জানান, মিলহাউজের তিন নম্বর টারবাইনে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে উদ্বোধনের পর থেকেই এ সমস্যা দেখা দিয়েছে।
তিনি আরো বলেন, ‘কারখানায় যান্ত্রিক সমস্যা হলে কিছুই করার নেই। এই মৌসুমে সব থেকে বেশি সময় আখ মাড়াই বন্ধ রয়েছে মিলটিতে।’

আরও পড়ুন