যৌন হয়রানি, ছাত্রী বিক্ষোভের মুখে শিক্ষক আটক

আপডেট: 01:57:05 27/08/2017



img

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ঝিনাইদহে এক স্কুলশিক্ষককে ধরে থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।
এর আগে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে স্কুলটির শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করে। তারা স্কুলে তালাও দেয়। স্কুল কমিটির সভাপতি বিচারের আশ্বাস দেওয়ায় শিক্ষার্থীরা শান্ত হয়। আজ রোববার এ বিষয়ে স্কুল পরিচালনা কমিটির জরুরি সভা হওয়ার কথা রয়েছে।
স্থানীয়রা অভিযোগ করছেন, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পশ্চিম দুর্গাপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলু অষ্টম শ্রেণিপড়ুয়া এক কিশোরীকে যৌন হয়রানি করেছেন। ঘটনা জানাজানি হওয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।
শনিবার শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত শিক্ষকের শাস্তি দাবিতে স্কুলে ব্যাপক বিক্ষোভ করে। তারা স্কুলটির কক্ষগুলোতে তালাও ঝুলিয়ে দেয়।
খবর পেয়ে স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও মধুহাটী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক আহম্মেদ জুয়েল স্কুলে যান। তিনি ন্যায্য বিচারের আশ্বাস দেওয়ায় শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ থামায়।
সভাপতি জানিয়েছেন, অভিযোগের বিষয়ে আজ স্কুল পরিচালনা কমিটির জরুরি সভা ডাকা হয়েছে।
পশ্চিম দুর্গাপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমান ছাত্রীদের বিক্ষোভ ও ক্লাস রুমে তালা দেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।
বক্তব্য জানার জন্য অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলুর নাম্বারে একাধিকবার ফোন করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।
ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমাদুল হক শেখ জানান, অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলুকে থানায় আনা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে ।
প্রসঙ্গত, এর আগে জহুরুল ইসলাম নামে একই স্কুলের আরেক শিক্ষকের বিরুদ্ধে এক ছাত্রীর গায়ে হাত দেওয়া ও তাকে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ ওঠে। সে সময় ওই শিক্ষককে তিন মাস সাসপেন্ড করে তাবলিগ জামাতের চিল্লায় পাঠিয়ে দেওয়া হয় বলে স্থানীয়রা জানান।

আরও পড়ুন