রাজনীতিতে সক্রিয় হতে পারেন কোকোর স্ত্রী সিঁথি

আপডেট: 12:56:12 08/05/2018



img

স্টাফ রির্পোটার : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি দলীয় রাজনীতিতে আসছেন- এ ধরনের জোর গুঞ্জন চলছে মাগুরা বিএনপি নেতা-কর্মীদের মাঝে। শুধু দলীয় নেতৃত্ব নয়, আগামী সংসদ নির্বাচনে মাগুরা-১ আসনে তিনি প্রার্থী হচ্ছেন- এমন কথাও জোর দিয়ে বলছেন অনেকে। মাগুরায় সিঁথির নিকটজনেররাও এ বিষয়ে ইতিবাচক মত প্রকাশ করছেন। তারা বলছেন, পারিবারিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সিঁথির রাজনীতিতে আসার বিষয়টি এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। 
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার পুত্রবধূ শর্মিলা রহমান সিঁথি। পৈত্রিক সূত্রে ঢাকার আজিমপুরের বাসিন্দা হলেও তার শৈশব-কৈশরের অধিকাংশ সময় কেটেছে মাগুরায় মামাবাড়িতে। মাগুরা শহরতলীর লক্ষ্মীকন্দর গ্রামে তার মামাবাড়ি। যে কারণে মাগুরার প্রতি তার রয়েছে বিশেষ অনুভূতি।
সিঁথির মামা সদ্য প্রয়াত অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোকাদ্দেস আলী ছিলেন মাগুরা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক। এর আগে দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে দায়িত্ব পালন করেছেন সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি হিসেবে। বিএনপির স্থানীয় নেতা-কর্মীরা মনে করেন সিঁথি মাগুরারই মেয়ে, তাদেরই সন্তান।
মাগুরা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আক্তার হোসেন বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে শর্মিলা রহমান সিঁথির বিএনপির হাল ধরার সম্ভাবনা রয়েছে। দল ও মিডিয়ার মাধ্যমে শুনেছি পরিবার ও দলের মধ্যে এ ধরনের একটি প্রক্রিয়া চলছে। জিয়া পরিবারের সদস্য হিসেবে তিনি দলের দায়িত্ব নিলে বিএনপি আরো ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী হবে। বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলন জোরদার হবে। এ ছাড়া আগামী নির্বাচনে মাগুরার মেয়ে হিসেবে তাকে মাগুরা-১ আসনে প্রার্থী করার চিন্তা-ভাবনা চলছে।
একই ধরনের মন্তব্য করেন মাগুরা পৌর বিএনপির সভাপতি আইয়ুব হোসেন। তিনি বলেন, বেগম জিয়া কারারুদ্ধ। তারেক জিয়া বিদেশে। এঅবস্থায় সিঁথি বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় হলে দল শক্তিশালী হবে। শুধু দলীয় নেতৃত্ব নয়, বগুড়ার পাশাপশি মাগুরা-১ আসন থেকে তার নির্বাচন করার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন বিএনপি নেতা আইয়ুব।
আব্দুর রশিদসহ বিএনপির মাঠ পর্যায়ের একাধিক নেতা বলছেন, তারাও শুনেছেন শর্মিলা রহমান সিঁথি দলের নেতৃত্বে আসছেন এবং মাগুরা থেকে নির্বাচন করছেন। তিনি রাজনীতিতে এলে তৃণমূলে দলের নেতা-কর্মীরা ব্যাপকভাবে উজ্জীবিত হবেন।
মাগুরা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সদ্য প্রয়াত সৈয়দ মোকাদ্দেস আলীর ছেলে ও সিঁথির মামাতো ভাই সৈয়দ মাহবুব মিল্টন বলছেন, সিঁথির শৈশবের সকল স্মৃতিই মামাবাড়িকে ঘিরে। মাগুরার প্রতি তার বিশেষ টান রয়েছে। মাগুরার জন্য তিনি অনেক কিছু করতে চান। জিয়া পরিবারে সদস্য হিসেবে তিনি নির্বাচন ও দলের নেতৃত্বে আসতে পারেন।
সিঁথির এক নিকটাত্মীয় নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সিঁথি রাজি না থাকলেও কারারুদ্ধ বেগম খালেদা জিয়া ও লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমান তাকে (সিঁথিকে) দলে সক্রিয় হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। ফলে যে কোনো সময় এ বিষয়ে বড় ধরনের চমক আসতে পারে। নিজের মতের বাইরেও সিঁথিকে দলের নেতৃত্বে দেখা যেতে যেতে পারে।
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও মাগুরা-২ আসনে বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট নিতাই রায়চৌধুরী বলেন, ‘রাজনীতিতে কখন কী হয় বলা যায় না। আর দলীয় প্রধান বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যদি মনে করেন সিঁথিকে দলের নেতৃত্বে আনবেন, তবে সেটা হতেই পারে। এ বিষয়ে আমার কোনো স্পষ্ট ধারণা নেই। সময় হলেই সব জল্পনা কল্পনার অবসান হবে।’

আরও পড়ুন