লোহাগড়ায় আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলা

আপডেট: 02:56:20 08/07/2018



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : লোহাগড়ায় রুমকি নামে এক গৃহবধূকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে।
আত্মহত্যাকারিণী রুমকির বাবা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে তার স্বামী ও ভাসুরের নামে শনিবার (৭ জুলাই) রাতে মামলাটি করেন। মামলা হওয়ার পর আসামিরা গা-ঢাকা দিয়েছেন।
এজাহার বলা হয়েছে, শহরের ব্যবসায়ী নজরুল ইসলামের মেয়ে রুমকি খানমের (২৬) সঙ্গে মহিষাপাড়া এলাকার রশিদ মোল্যার ছেলে আমিনুর রহমানের (৩২) বিয়ে হয় ২০১২ সালে। তাদের সংসারে রাকিন নামে চার বছরের একটি ছেলেসন্তানও রয়েছে। কিন্তু স্বামী আমিনুর মাদকাসক্ত হওয়ায় প্রায়ই তাদের সংসারে কলহ লেগে থাকতো। স্বামীর মাদকাসক্তির বিষয় নিয়ে আমিনুরের বড় ভাই লোহাগড়া বাজারের ওষুধ ব্যবসায়ী কচি মোল্যার সঙ্গে রুমকির ঝগড়া-ফ্যাসাদও হয়। রুমকি তার স্বামীকে নেশার পথ থেকে ফিরিয়ে আনার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হন। মাদকাসক্ত স্বামী আমিনুর স্বাভাবিক জীবনে না ফেরায় রুমকি ক্ষোভে-দুঃখে গত ১১ জুন আত্মহননের পথ বেছে নেন। এ দিন রুমকি লোহাগড়া বাজার-সংলগ্ন বাসার সিলিং ফ্যানের হুকের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। এ সময় স্বামী আমিনুর বাড়িতে ছিলেন না।
এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রুমকিকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ঘটনায় লোহাগড়া থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়। মামলা নম্বর ২১/১৮।
গত ১২ জুন নড়াইল সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে রুমকিকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
এদিকে বাবা নজরুল ইসলাম আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ এনে রুমকির স্বামী আমিনুর ও ভাসুর কচির নামে গত শনিবার (৭ জুলাই) রাতে লোহাগড়া থানায় একটি মামলা করেন।
লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রবীরকুমার বিশ্বাস মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও লোহাগড়া থানার এসআই আতিকুজ্জামান জানান, আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন