শিশু ধর্ষণ ও হত্যায় বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ

আপডেট: 01:40:31 05/03/2019



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের কন্যাশিশু তৃষা ধর্ষণ ও হত্যার বিচার ও সন্দেহভাজন খুনি শামিমের আটকের দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী।
আজ মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত যশোর শহরতলীর ধর্মতলায় যশোর-ঝিনাইদহ সড়ক অবরোধ করে শ’ শ’ নারী, পুরুষ ও শিশু শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে অংশ নেয়। এসময় তারা সন্দেহভাজন খুনি শামিমের আটক ও বিচার দাবি করে স্লোগান দেয়।
এদিকে, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
গত রবিবার (৩ মার্চ) বিকেলে খেলা করতে গিয়ে কারবালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী তৃষা নিখোঁজ হয়। এরপর ৪ মার্চ সন্ধ্যার দিকে বাড়ির পাশে গর্ত দেখে সন্দেহ হয় স্থানীয়দের। গর্তটি খুঁড়ে তৃষার লাশ পাওয়া যায়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।
এ ঘটনায় আজ সকালে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও তৃষার সহপাঠীরা বিচারের দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এসময় রাস্তার দুধারে যানবাহনের দীর্ঘ সারি পড়ে যায়। এসময় এলাকাবাসী ও তৃষার সহপাঠীরা নির্মম এ হত্যাকা-ের সাথে জড়িতদের আটক ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
স্থানীয় বাসিন্দা এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদ সরদার বলেন, এই শিশু আমাদের সন্তানের মতোই। যে বা যারা এই জঘণ্য ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদের যেন কঠোর শাস্তি দেওয়া হয়- প্রশাসনের কাছে সেই আবেদন করছি।
কারবালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক কাজল বসু বলেন, আমার স্কুলসহ অন্য কোনও শিশু যেন এমন নিষ্টুর নির্যাতনের শিকার না হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিনীত আবেদন করছি, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হয়। যাতে করে অন্য কেউ এমন অপকর্ম করার সাহস না দেখায়।
এদিকে, যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি অপূর্ব হাসান জানিয়েছেন, তৃষাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে তাদের ধারণা। এ ঘটনায় তৃষার বাবা মামলা করেছেন এবং অভিযুক্তকে শনাক্ত করা হয়েছে। আসামিকে আটক করতে অভিযান অব্যাহত আছে।
তিনি এলাকাবাসীকে প্রশাসনের উপর আস্থা রাখার আহবান জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন