শীত-কুয়াশা উপেক্ষা করে ইজতেমায় আসছেন মুসল্লিরা

আপডেট: 07:53:40 28/12/2017



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : শীত-কুয়াশা উপেক্ষা করে ইজতেমায় আসছেন মুসল্লিরা। তবলিগ জামাতের উদ্যোগে যশোর উপশহরে আজ শুরু হয় এই আঞ্চলিক ইজতেমা।
আজ বৃহস্পতিবার ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকার মুসল্লিদের আসতে দেখা যায় ইজতেমাস্থলে। এদের মধ্যে যশোর জেলার বিভিন্ন এলাকার মুসল্লি ছাড়াও আশপাশের জেলা এমনকি বিদেশিরাও রয়েছেন। তারা আসছেন পায়ে হেঁটে, বাস-ট্রাক বা বিভিন্ন ধরনের ছোট ছোট যানবাহনে চেপে। নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নিয়ে তারা বয়ান শুনছেন।
এর আগে আম বয়ানের মধ্য দিয়ে উপশহর ক্রীড়া উদ্যানে শুরু হয় আঞ্চলিক ইজতেমা।
এবারের ইজতেমায় বাংলাদেশ ছাড়াও থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া প্রভৃতি দেশের মোট ৩০ জন ধর্মপ্রাণ মুসলিম অংশ নিচ্ছেন বলে জানান আয়োজকরা। তাদের আশা, আগামীকাল শুক্রবার জুমার নামাজে লক্ষাধিক মুসল্লি অংশ নেবেন।
ইজতেমা উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনী গড়ে তুলেছে। জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে গোটা ইজতেমা মাঠকে সিসি টিভির আওতায় আনা হয়েছে। এছাড়া সুষ্ঠুভাবে ইজতেমা সম্পন্ন করতে কাজ করছেন কয়েকশ’ স্বেচ্ছাসেবী।
ইজতেমার জিম্মাদার রেজাউল ইসলাম রেজা জানান, বৃহস্পতিবার বাদজোহর আম বয়ানের মাধ্যমে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। তবে বাংলাদেশ তবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বিরা পাটুরিয়া ঘাটে আটকা পড়ায় নির্ধারিত সময়ে যশোরে এসে পৌঁছাতে পারেননি। সেই কারণে নির্ধারিত মুরব্বির বদলে তাবলিগ জামাতের প্রয়াত আমির মরহুম মাওলানা আব্দুল আজিজের ছেলে মাওলানা মাসুমুর রহমান আম বয়ান পরিচালনা করেন।
তিনি জানান, কাকরাইলের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বি শাহাবুদ্দিন নাসিম ও মাওলানা মোশাররফ হোসেন বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় ইজতেমাস্থলে এসে পৌঁছান। আখেরি মোনাজাত পর্যন্ত তারা ইজতেমায় থাকবেন। পর্যায়ক্রমে তাবলিগের এ দুজন মুরব্বি বয়ান করবেন।

আরও পড়ুন