সংখ্যালঘুদের জন্য ৬০ আসন চান রানা দাশগুপ্ত

আপডেট: 07:13:31 05/10/2018



img

মাগুরা প্রতিনিধি : বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত জাতীয় সংসদে সংখ্যালঘুদের জন্য ৬০ আসন দাবি করেছেন। তবে আগামী নির্বাচনে তিনি অন্তত ৩০টি আসন চান।
রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘আমরা শপথ নিয়েছি সংখ্যালঘু সম্প্রদায় নির্যাতনকারীকে মনোনয়ন দিলে আমরা তাকে ভোট দেবো না। আমরা আগামী নির্বাচনে সাম্প্রদায়িকতামুক্ত, রাজাকারমুক্ত সংসদ চাই। সে যে দলের লোকই হোক, বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে মেনে নিয়েই তাকে সংসদ সদস্য হতে হবে। আমরা সরকারি দলসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে বার বার বিষয়গুলি অবহিত করে আসছি। একই সাথে পার্লামেন্টে আমরা সংখ্যালঘুদের জন্য ৬০টি আসন সংরক্ষণ চাই। তবে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংখ্যালঘুদের জন্য অন্তত ৩০টি আসনের প্রতিনিধিত্ব থাকতে হবে।’
তিনি আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মাগুরা-১ আসনে অ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর ও মাগুরা-২ আসনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ্রীবীরেন শিকদারকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবি জানান।
রানা দাশগুপ্ত আজ শুক্রবার বিকেলে মাগুরার শ্রীপুর উপজেলা সদরের মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এসেব এ সব কথা বলেন।
সম্মেলন উদ্বোধন করেন মাগুরা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পংকজ কুণ্ডু। সভাপতিত্ব করেন শ্রীপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শিশিরকুমার শিকদার।
এতে প্রধান বক্তা ছিলেন-বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নির্মল চ্যাটার্জী। বিশেষ অতিথি ছিলেন হিন্দু যুব ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পংকজকুমার সাহা, মাগুরা জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট প্রদ্যুৎকুমার সিংহ, সাধারণ সম্পাদক বাসুদেব কুণ্ডু, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি রমেন্দ্রনাথ বাছাড়, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সনজিৎকুমার বিশ্বাস।

আরও পড়ুন