সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবিরোধী মানববন্ধন

আপডেট: 02:10:59 02/08/2016



img
img
img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার মাসপূর্তিতে বাংলাদেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে জঙ্গিবাদবিরোধী মানববন্ধন হয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী সোমবার বেলা ১১টা থেকে এই মানববন্ধন শুরু হয়, চলে বেলা ১২টা পর্যন্ত।
প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তারা ছাড়াও আশপাশের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা এই কর্মসূচিতে অংশ নেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণ থেকে রাজু ভাস্কর্য পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।
এছাড়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, মিরপুর, ধানমন্ডি, উত্তরা, বনানীসহ ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সামনে এ কর্মসূচিতে অংশ নেন হাজার হাজার শিক্ষার্থী।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হারুনুর রশিদ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে এ কর্মসূচিতে অংশ নেন।
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজে হাজারো শিক্ষার্থী মানববন্ধনে অংশ নেন।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ভুক্ত বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, বোরহানউদ্দিন কলেজ, তেজগাঁও কলেজ ও ঢাকা নার্সিং কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন শহীদ মিনারের কর্মসূচিতে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা পাশেই নিজেদের ক্যাম্পাসের সামনে মানববন্ধন করেন।
দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়সহ্ উচ্চ শিক্ষার সব প্রতিষ্ঠানে পালিত হয়েছে জঙ্গিবাদবিরোধী এ কর্মসূচি।
রোববার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের পক্ষ থেকে সব বিশ্ববিদ্যালয়কে এই কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, “গত ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা হয়েছে। অতপর কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার ঈদের ময়দানের কাছে এর পুনরাবৃত্তি ঘটেছে।
“এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ও অনভিপ্রেত ঘটনার মাধ্যমে যাতে জাতীয় স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করতে কোনো মহল আর কোনো অপপ্রয়াস চালাতে না পারে, সে বিষয়ে সকলের সচেতনতা একান্ত জরুরি।”
দেশের সব জেলার ৪৫ থেকে ৫০ লাখ মানুষ এ মানববন্ধনে অংশ নেবে আশা প্রকাশ করে ইউজিসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান রোববার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “এই বার্তা পৌঁছে দিতে হবে যে সব ধরনের শিক্ষাঙ্গন জ্ঞানচর্চার জায়গা, জঙ্গিবাদের জায়গা নয়।”

খুলনা : সোমবার আলাদা আলাদাভাবে নগরীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে জঙ্গিবাদবিরোধী মানববন্ধন ও সমাবেশ হয়েছে। বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত স্ব-স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ করে প্রতিষ্ঠানগুলো।
সরকারি ইকবালনগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের মানববন্ধন ও সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজান। বিশেষ অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের পরিচালক টি এম জাকির হোসেন।
এছাড়া সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, জিলা স্কুল, সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর খুলনাঞ্চলের পরিচালক টি এম জাকির হোসেন।
এছাড়া এসব সমাবেশ ও মানববন্ধনে স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানসহ শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বক্তব্য রাখেন।
মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর খুলনাঞ্চলের সূত্র জানান, সোমবার খুলনা বিভাগের তিন হাজার ৯০০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একযোগে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী এ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহের শৈলকুপার জরিপ বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজে সোমবার বেলা ১১টায় জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে কলেজ অধ্যক্ষ সুব্রতকুমার মল্লিক, কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি জাহিদুন্নবী কালু, কলেজের সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী কমিটির আহ্বায়ক হারুন অর রশিদ হেলালসহ শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
সূত্র : বিডিনিউজ, স্টাফ রিপোর্টার ও জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি

নড়াইল : সোমবার বেলা ১১টায় নড়াইলে কলেজ, মাদরাসা, মাধ্যমিকস্কুলসহ জেলার প্রায় সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এক ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধন হয়। স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের সামনে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জঙ্গিবাদবিরোধী এ মানববন্ধন করে।

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) : কলারোয়া উপজেলার কাজীরহাট ডিগ্রি কলেজে জঙ্গিবাদবিরোধী মানববন্ধন হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত কলেজের সামনে যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কে কর্মসূচিতে কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। কলেজ অধ্যক্ষ এস এম সহিদুল আলমের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে সহকারী অধ্যাপক শহিদুজ্জামান লাভলু, ইসমাইল হোসেন, রফিকুল ইসলাম, সাহাদাত হোসেন, মঞ্জুরুল আলম, কে এম আনিছুর রহমান প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
এছাড়া উপজেলার শেখ আমানুল্লাহ কলেজ, ছলিমপুর কলেজ, কাজীরহাট হাইস্কুল, বালিকা বিদ্যালয়, কোটা হাইস্কুল, সিংগা হাইস্কুল, কলারোয়া পাইলট হাইস্কুল, বেত্রবতী হাইস্কুল, আলিয়া মাদরাসা, পানিকাউরিয়া হাইস্কুল, কামারালী হাইস্কুল, সরসকাটি হাইস্কুল, বালিকা বিদ্যালয়, দাখিল মাদরাসাসহ উপজেলার বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুরূপ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) : মহেশপুর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, ছাত্রছাত্রীরা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবিরোধী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন। বেলা ১১টায় মহেশপুর সরকারি ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে কলেজের সামনে থেকে কলেজ বাসস্ট্যান্ড, মহেশপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ ছাত্র-ছাত্রীরা রিপোর্টার্স ক্লাব চত্বরে, পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ ছাত্র-ছাত্রীরা থানার সামনে, পৌর ল্যাব বিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ ছাত্র-ছাত্রীরা পুরনো পৌর ভবনের সামনে, পৌর মহিলা কলেজের শিক্ষকসহ ছাত্রীরা কলেজের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

মাগুরা : শহরের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে। সোমবার বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালিত হয়।
মাগুরা-ঝিনাইদহ সড়কের জেলা পরিষদের সমনে মাগুরা আদর্শ কলেজ, সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়, সদর হাসপাতালের সামনে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ, শুভেচ্ছা স্বুল, এমআর রোড়ে সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, সরকারি বালিকা বিদ্যালয়, এজি একাডেমি, দুধমল্লিক বালিকা বিদ্যালয়, পারনান্দুয়ালী হাইওয়েতে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় মাগুরা শাখা, পারনান্দুয়ালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মানববন্ধন ও সমাবেশ করে।
আদর্শ কলেজের সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ সূর্যকান্ত বিশ্বাস, উপাধ্যক্ষ কাবিয়ার রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ মো. রেজাউল ইসলাম প্রমুখ।
সরকারি কলেজের সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ বিজন সরকার, অধ্যাপক মোল্লা সাইদুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন মুক্তা, যুগ্ম-সম্পাদক জাহিরুল ইসলাম প্রমুখ।

সাতক্ষীরা : জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেছেন। সোমবার বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালন করা হয়।
সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও নন্দিত ক্রিকেটার সৌম্যের বাবা কিশোরীমোহন সরকার বলেন, ‘পরিবার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রথমে মৌলবাদী জঙ্গিবাদী চিন্তা পরিহার করাতে হবে। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করতে হবে শিশুদের।’
এছাড়া টাউন গার্লস হাইস্কুল, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পলাশপোল হাইস্কুলসহ জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও একইভাবে মানববন্ধনের আয়োজন করে।

চৌগাছা (যশোর) : চৌগাছায় জঙ্গিবিরোধী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়ে বেলা ১২টা পযর্ন্ত এ মানববন্ধন চলে। মানববন্ধনে উপজেলার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষক-কর্মচারী অংশগ্রহণ করেন। এসময় জঙ্গিবিরোধী বক্তব্য ও স্লোগানে চারিদিক মুখরিত হয়ে ওঠে। উপজেলা সদরে যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে তার মধ্যে রয়েছে চৌগাছা কামিল মাদরাসা, চৌগাছা ডিগ্রি কলেজ, চৌগাছা মহিলা ডিগ্রি কলেজ, তরিকুল ইসলাম পৌর কলেজ, এসএম হাবিবুর পৌর কলেজ, চৌগাছা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রভৃতি।

চুয়াডাঙ্গা : ‘জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসমুক্ত বাংলাদেশ চাই’, ‘বাংলাদেশে জঙ্গিদের ঠাঁই নাই’- এ জাতীয় স্লোগানসম্বলিত ব্যানার নিয়ে জঙ্গিবাদবিরোধী মানববন্ধন করেছে চুয়াডাঙ্গার স্কুল, কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষার্থীরা। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় চুয়াডাঙ্গা ভি জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হাজার হাজার শিক্ষার্থী একযোগে ওই মানববন্ধন করেন

সূত্র : বিডিনিউজ, সুবর্ণভূমির স্টাফ রিপোর্টার, অফিস ও প্রতিনিধি

আরও পড়ুন