সুন্দরবনে মধু আহরণ মৌসুম শুরু

আপডেট: 04:23:23 01/04/2019



img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে চলতি বছর মধু আহরণ মৌসুম শুরু হয়েছে।
১ এপ্রিল সোমবার সকাল দশটায় বুড়িগোয়ালিনী ফরেস্ট স্টেশন চত্বরে সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এসএম জগলুল হায়দার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মধু আহরণ মৌসুম উদ্বোধন করেন।
খুলনা বিভাগীয় বন সংরক্ষক (পশ্চিম) ডিএফও বশিরুল আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শ্যামনগর উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এস এম আতাউল হক দোলন।
সাতক্ষীরার সহকারী রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) জিএম রফিক আহমেদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সাতক্ষীরা রেঞ্জের কর্মকর্তা-কর্মচারী, মৌয়াল, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।
ডিএফও বশিরুল আল মামুন জানান, চলতি বছর সাতক্ষীরা রেঞ্জে এক হাজার ৫০ কুইন্টাল মধু এবং ২৬৫ কুইন্টাল মোম আহরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি কুইন্টাল মধুর জন্য ৭৫০ টাকা এবং প্রতি কুইন্টাল মোমের জন্য এক হাজার ৫০০ টাকা রাজস্ব নির্ধারণ করা হয়েছে। সুন্দরবনে বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য ঘোষিত কম্পার্টমেন্ট ৪৯, ৫১(এ), ৫১(বি), ৫২, ৫৩, ৫৪ ও ৫৫ নম্বর এলাকায় মৌয়ালরা মধু আহরণ করতে পারবেন না। একবার পাশ (অনুমতিপত্র) নিয়ে মৌয়ালরা সুন্দরবনে সর্বোচ্চ ১৪ দিন অবস্থান করে মাথাপিছু ৫০ কেজি মধু এবং ১৫ কেজি অপরিশোধিত মোম আহরণ করতে পারবেন। তাছাড়া মৌয়ালরা কোনো অগ্নিকুণ্ড বা অনুরূপ কোনো দাহ্য পদার্থ বা রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার করতে পারবেন না, যার দ্বারা সুন্দরবনে আগুন লাগাসহ মৌমাছিদের আহত বা মৃত্যুর কারণ হতে পারে।
জানানো হয়, বন্যপ্রাণীর হাত থেকে রক্ষার জন্য মৌয়ালদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত আড়াই মাসব্যাপী সুন্দরবনে মধু আহরণ মৌসুম নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে মৌয়ালদের যাবতীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। অনুকূল আবহাওয়ায় এবছর মধু আহরণের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে বলে আশা করা হয়।
উদ্বোধনে দিনেই চারশ’ মৌয়াল মধু সংগ্রহের জন্য বনে প্রবেশ করেছেন বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন