সোনা ছিনতাই মামলায় তিন পুলিশ কারাগারে

আপডেট: 09:39:33 21/05/2019



img

স্টাফ রিপোর্টার : সোনা ছিনতাই মামলায় ধরা খেলেন দু’অফিসারসহ তিন পুলিশ সদস্য। এরা হলেন যশোরের শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই তবিবর রহমান (৩২), এএসআই রঞ্জণ কুমার মৈত্র (৩৭) ও কনস্টেবল (ড্রাইভার) তুষার সরকার (২৮)।
গ্রেফতার ওই তিন পুলিশকে আদালতে নেওয়া হলে আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন।
শার্শা থানার এসআই ও মামলার বাদী মো. আবুল হোসেন বলেন, ১৯ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ওই তিন পুলিশ সদস্য শার্শা উপজেলার সামটা জামতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে সাজেদুর ও আক্তারুল নামে দুই ব্যক্তির কাছ থেকে আট পিস সোনার বার উদ্ধার করেন। এরপর তাদের ছেড়ে দিয়ে সোনার বারগুলো আত্মসাৎ করেন পুলিশের ওই তিনজন।
এদিকে, গোপনে বিষয়টি জানতে পারেন জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ওই দিন রাতে তাদের শার্শা থানায় তলব করা হয়। এসময় এএসআই তবিবুর রহমানের পকেট থেকে টেপে মোড়ানো অবস্থায় ৮টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। সোনা ছিনতাইয়ের অভিযোগে পরদিন ২০ মে পুলিশের ওই তিনজনের বিরুদ্ধে শার্শা থানায় মামলা (মামলা নম্বর ২৫/২০.০৫.১৯) করা হয়।
তিনি বলেন, উদ্ধার সোনার ওজন প্রায় ৮৬ ভরি এবং বাজারমূল্য প্রায় ৪০ লাখ টাকা।
আবুল হোসেন আরও জানান, সোনা চোরাচালানের অভিযোগে শার্শা উপজেলার মহিষকুড়া এলাকার সাজেদুর ও আক্তারুলের বিরুদ্ধেও মামলা করা হয়েছে।
তিনি জানান, আজ মঙ্গলবার দুপুরে তাদের আদালতে নেয়া হয়।
আদালত সূত্রে জানা যায়, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলামের আদালতে তাদের হাজির করা হলে তিনি ওই তিন পুলিশ সদস্যকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

আরও পড়ুন