‘ছাত্রলীগের হাতে’ আক্রান্ত ডাকসু ভিপি

আপডেট: 03:22:27 12/03/2019



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ডাকসুর ভিপি নির্বাচিত হওয়ার পরদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আনন্দমিছিলে যোগ দিতে এসে হামলার মুখে পড়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের মোর্চা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা নূরুল হক নূর।
মঙ্গলবার বেলা পৌনে ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে এই হামলার জন্য ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের দায়ী করেছে ছাত্রদল।
ডাকসু নির্বাচনে ভোট চলাকালে সোমবার দুপুরে রোকেয়া হলে গিয়ে নূর ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন বলে তার অনুসারীদের অভিযোগ। সেখান থেকে তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতে হাসপাতালেই তিনি ভিপি নির্বাচিত হওয়ার খবর পান।
বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আনন্দমিছিলে যোগ দিতে মঙ্গলবার দুপুরে ক্যাম্পাসে আসেন নূর। বেলা দেড়টায় টিএসসি থেকে শুরু হয়ে মিছিলটি কলাভবন ঘুরে আবার টিএসসিতে এলে হামলার ঘটনা ঘটে।
ঘটনাস্থল থেকে সাংবাদিকরা জানান, নূর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে এগিয়ে গেলে একদল তরুণ লাঠিসোটা নিয়ে তাকে ধাওয়া করে। পাশাপাশি তার দিকে ঢিল ছোড়া শুরু হয়। এই পরিস্থিতিতে কয়েকজন সমর্থক নূরকে নিয়ে টিএসসির ভেতরে চলে যান।
একই সময়ে টিএসসির সামনে আলাদাভাবে সভা করছিল ছাত্রদল, বাম জোট সমর্থিত ছাত্র সংগঠনগুলো এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জোট।
ডাকসু নির্বাচনে জিএস পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা ছাত্রদল নেতা আনিসুর রহমান খন্দকার বলেন, “হামলাকারীরা সবাই ছাত্রলীগের। এ দলের নেতৃত্বে ছিল ফেরদৌস ও সায়েম।”
তিনি দাবি করেন, ‘ছাত্রলীগের’ হামলায় তাদের পাঁচ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। ছাত্রদল নেতা তৌহিদুল ইসলামের মাথা ফেটে গেছে।
নবনির্বাচিত ভিপি নূর পরে বেলা সোয়া দুইটার দিকে তার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেন। ছাত্রদল, বামজোট সমর্থিত ছাত্র সংগঠনগুলো ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জোটও তাতে অংশ নেয়। 
এ সময় তারা স্লোগান দেন- “সন্ত্রাসীদের হামলা কেনো? বিচার চাই, বিচার চাই।”
সূত্র : বিডিনিউজ

আরও পড়ুন