‘নিজের মাথায় গুলি করেন সদ্য বিবাহিত ছাত্রলীগ নেতা’

আপডেট: 03:01:05 31/05/2018



img
img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নাজমুল (৩০) নিজ বাড়িতে মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হওয়ার আলোচিত ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনের দাবি করেছে পুলিশ।
সংবাদ সম্মেলনে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম মেহেদী হাসান দাবি করেছেন, অন্য কারো গুলিতে না, নাজমুল নিজের গুলিতেই আত্মহত্যা করেছেন। অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। বিষয়টি সমর্থন করেছেন নাজমুলের পরিবারও।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনে এ সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার ছাড়াও নাজমুলের বাবা আলতাফ হোসেন, মা নাজমা খাতুন, সদ্য বিবাহিত স্ত্রী ঊর্মি খাতুন উপস্থিত ছিলেন।
পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের বলেন, হতাশা থেকে নাজমুল আত্মহত্যা করেছেন। তবে কী কারণে জেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি, সদ্য বিবাহিত নাজমুল হতাশগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন, ছিল নিশ্চিত করেননি এসপি। এ বিষয়ে সঠিক তথ্য দিতে পারেননি পরিবারের সদস্যরাও।
মা নাজমা খাতুন বলেন, ‘গুলির শব্দে ওর ঘরে গিয়ে দেখি গুলিবিদ্ধ নাজমুল মেঝেতে পড়ে আছে। ভয়ে দ্রুত অস্ত্রটি তুলে নিয়ে পাশের বাড়িতে লুকিয়ে রাখি। তখন নববধূ নাজমুলের পাশে কাঁদছিল। পুলিশ আত্মহত্যায় ব্যবহৃত ওয়ান শুটারগান ছাড়াও একটি পিস্তল উদ্ধার করেছে।’
গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের ফারাজিপাড়ায় নাজমুলের নিজ ঘরের মেঝে থেকে মাথায় গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার হয়।
নাজমুল গত রোববার ঊর্মি খাতুনকে বিয়ে করেন।

আরও পড়ুন