‘প্লাস্টিকের ফুল নয়’

আপডেট: 02:31:07 11/09/2017



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : প্লাস্টিকের ফুল আমদানি ও ব্যবহার বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছেন গদখালীর ফুলচাষি ও ব্যবসায়ীরা।
এই এলাকায় বাংলাদেশে প্রথম বাণিজ্যিকভিত্তিতে ফুলচাষ শুরু হয়। এলাকাটিকে বাংলাদেশের ‘ফুলের রাজধানী’ বলা হয়। দেশে উৎপাদিত ফুলের সিংহভাগই ঝিকরগাছার গদখালী এলার্কা
গদখালী ফুল সমিতি ও বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার সোসাইটির উদ্যোগে আজ বেলা ১১টায় গদখালী ফুলবাজারে যশোর-বেনাপোল সড়কে মানববন্ধন হয়। ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে শতাধিক ফুলচাষি ও ব্যবসায়ী অংশ নেন।
মানববন্ধন শেষে সমাবেশ হয়। সমাবেশে ফুল চাষ, বিপণন ও সৃষ্ট সমস্যা থেকে উত্তরণের বিষয়ে আলোচনা করেন সংশ্লিষ্টরা।
সমাবেশে বলা হয়, দেশে প্রথম ১৯৮২ সালে গদখালীতে বাণিজ্যিকভাবে ফুল চাষ শুরু হয়। বর্তমানে ২৫ জেলায় প্রায় সাত হাজার হেক্টর জমিতে ফুলের চাষ হয়। ক্রমে ফুলের হাজার কোটি টাকার বাজার তৈরি হয়েছে দেশে। আর এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে ৩০ লাখ মানুষের জীবিকা।
তারা বলেন, কিন্তু একটি চক্র ব্যবসার নামে চীন ও থাইল্যান্ড থেকে প্লাস্টিকের ফুল আমদানি করে সম্ভাবনাময় ফুলচাষকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। এ ধারা অব্যাহত থাকলে চাষি ও ব্যবসায়ীরা ঋণের জালে জড়িয়ে সর্বস্বান্ত হয়ে পড়বে।
এজন্য তারা অবিলম্বে প্লাস্টিকের ফুল আমদানি ও ব্যবহার বন্ধে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার সোসাইটির সভাপতি, পথিকৃৎ ফুলচাষি আব্দুর রহিম বলেন, ‘চাষিরা নিজেদের মেধা, শ্রম আর টাকা খরচ করে তিলে তিলে এই দেশে ফুলের চাষ ও বাজার বাড়িয়েছে। কিন্তু ব্যবসার নামে প্লাস্টিকের ফুল আমদানি করে এক শ্রেণির মানুষ তাজা ফুলের বাজারকে ধ্বংস করে দিতে উদ্যত হয়েছে। এখনই এই প্রবণতা না ঠেকাতে পারলে দেশে বিকাশমান ফুলচাষ ধ্বংস হয়ে যাবে।’

আরও পড়ুন