‘অনিয়ম হবে না, তার নিশ্চয়তা দেওয়া যায় না’

আপডেট: 05:40:47 07/08/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : নির্বাচনগুলোতে অনিয়ম হবে না, সে নিশ্চয়তা দেওয়া যায় না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা।
আজ মঙ্গলবার নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে ‘নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় প্রতিবন্ধী নাগরিকগণের অংশগ্রহণে চ্যালেঞ্জসমূহ’ শীর্ষক কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে সিইসি এসব কথা বলেন।
পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এখন জাতীয় নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ আছে কি না এমন প্রশ্নে নুরুল হুদা বলেন, ‘এ ধরনের নির্বাচনে অনিয়ম হয়েই থাকে। বড় বড় পাবলিক নির্বাচনে কিছু কিছু অনিয়ম হয়ে থাকে। আমরা সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়ে থাকি। বরিশালে বেশি অনিয়ম হয়েছে, সেখানে আমরা বাড়তি ব্যবস্থা নিয়েছি। নির্বাচনে অনিয়ম হলে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করা দরকার, সেভাবে আমরা নিয়ন্ত্রণ করব।’
নির্বাচনী পরিবেশের সুব্যবস্থা আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘অসুবিধা কোথায়? আমি তো কোনো অসুবিধা দেখি না। সংবিধানের বিধান অনুসারে নির্বাচন হবে।’
নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ওপর জাতির আস্থা নেই—ড. কামাল হোসেনের এমন মন্তব্যের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, ‘ড. কামাল হোসেন কীভাবে দেখেন, তা আমি জানি না। কোন জাতির কী পরিসংখ্যান, তার কাছে আছে, আমার জানা নেই। একটা কথা বলতে হলে জাতির পরিসংখ্যান নিতে হবে। জাতি কি তাকে বলেছে নাকি যে আমরা জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ওপর আস্থা রাখতে পারছি না?’
জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতির বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘জাতীয় সংসদের প্রস্তুতি আমাদের আগে থেকেই ছিল। অক্টোবরে তফসিল ঘোষণা করা হবে। ডিসেম্বরের শেষের দিকে অথবা জানুয়ারির প্রথম দিকে সংসদ নির্বাচন হবে। নিয়ম অনুযায়ী জানুয়ারির ২৮ তারিখের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। দেশে জাতীয় নির্বাচনের পরিবেশ আছে। এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। কমিশন বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলে নির্বাচনের পরিবেশে কোনো ব্যাঘাত ঘটবে কি না- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এখন যে পরিস্থিতি রয়েছে, এর সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই। এটি ভিন্ন ইস্যু। আন্দোলনকারীরা নির্বাচন নিয়ে কোনো কথা বলেনি।’
এর আগে সিইসি প্রতিবন্ধী ভোটাররা নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার সময় কী ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে, সে বিষয়ে এক কর্মশালার উদ্বোধন করেন। এ আয়োজনে যৌথভাবে অংশ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেক্টোরাল সিস্টেমস (আইএফইএস)।
প্রতিবন্ধীরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে গেলে কী কী সমস্যার সম্মুখীন হন। যারা দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, তাদের জন্য আলাদা ব্যালট পেপার ছাপানো যায় কি না, যাতে করে তারা হাত দিয়ে প্রতীক বুঝতে পারেন—এসব  বিষয়ে ২০ থেকে ২৫ জন প্রতিবন্ধীকে নিয়ে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।
সূত্র : এনটিভি

আরও পড়ুন