চুয়াডাঙ্গায় খুনি স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

আপডেট: 06:00:27 16/10/2018



চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : স্ত্রী হত্যার দায়ে চুয়াডাঙ্গার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে স্বামী মামুন আলীর মৃত্যুদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন বিচারক।
আজ মঙ্গলবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জজ এবং নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইবুনালের বিচারক মো. জিয়া হায়দার আসামির অনুপস্থিতিতে জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, দামুড়হুদা উপজেলার সদাবরী গ্রামের আশুব্বার আলীর ছেলে মামুন আলীর সঙ্গে একই উপজেলার চিৎলা পশ্চিমপাড়ার সাগরীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই মামুন তার স্ত্রী সাগরীর কাছে যৌতুক দাবি করে আসছিল। দাবি মেটাতে না পারায় মামুন স্ত্রীকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশ বাড়ির পাশে পুকুরে ফেলে দেয়। এরপর সাগরীর বাবা রহিম বক্স বাদী হয়ে মামুন আলীসহ চারজনকে অভিযুক্ত করে ২০১১ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি দামুড়হুদা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ এর ১১(ক) ধারায় মামলা করেন।
তদন্ত শেষে দামুড়হুদা মডেল থানার এসআই মোতাল্লিব সরকার অভিযুক্ত তিনজনকে অব্যাহতি দিয়ে মামুন আলীকে অভিযুক্ত করে ২০১১ সালের ৩১ মে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।
১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য-প্রমাণে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ১১ (ক) ধারায় অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক একমাত্র আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দেন।
আদালতের পাবলিক প্রসিকউিটরস (পিপি) অ্যাডভোকেট আব্দুল মালেক এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন