হাসপাতালের নামাজঘরে রোগীর মৃত্যু

আপডেট: 12:51:35 22/09/2017



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুর হাসপাতালের নারী ও শিশু ওয়ার্ডের নামাজ পড়ার ঘরে রাবেয়া খাতুন (৩২) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।
শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে তিনি মারা যান। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, শ্বাসকষ্টে এই মৃত্যু।
রাবেয়া উপজেলার বিজয়রামপুর গ্রামের ইউসুফ আলীর স্ত্রী।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক অনুপ বসু জানান, সকাল পৌনে আটটার দিকে শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার কারণে রাবেয়াকে হাসপাতালে আনেন তার শ্বশুর। রোগিনীর নাম জরুরি বিভাগে নথিভুক্ত না করিয়ে রাবেয়াকে নেবুলাইজার দেওয়ার জন্য দোতলায় নারী ও শিশু ওয়ার্ডের করিডোরে নিয়ে যান শ্বশুর। নেবুলাইজার দেওয়ার পর অবস্থা খারাপের দিকে যাওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ দেন ওই ওয়ার্ডে দায়িত্বরত নার্স। নার্সের কথা শুনে রাবেয়াকে রেখে প্রয়োজনীয় কাপড় চোপড় আনতে বাড়ি যান শ্বশুর। এরমধ্যে ওই ওয়ার্ডের নামাজঘরে বিশ্রাম নিতে যান রাবেয়া। সেখানে কয়েক মিনিট পরে মৃত্যু হয় তার।
অনুপ বসু বলেন, 'খবর পেয়ে সকাল ৮টা ১০ মিনিটের দিকে ওপরে গিয়ে দেখি রাবেয়া মারা গেছেন। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানো হয় তখনই। কিন্তু পুলিশ আসার আগেই স্বজনরা লাশ নিয়ে বাড়িতে চলে যান।'
বাড়িতে চলে যাওযায় এই বিষয়ে মৃতার স্বজনদের বক্তব্য জানা যায়নি।
মণিরামপুর থানার ওসি মোকাররম হোসেন বলেন, 'হাসপাতালে রোগী মৃত্যুর কোনো তথ্য আমার জানা নেই।'

আরও পড়ুন