সাতক্ষীরায় ভিজিএফের চাল আটক, মেম্বার গোলায়

আপডেট: 01:55:29 22/08/2018



img
img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরায় হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ ভিজিএফের আট বস্তা চাল আটক করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার ও যশোর থেকে প্রকাশিত একটি পত্রিকার সাতক্ষীরা প্রতিনিধি এস এম রেজাউল ইসলামের রান্নাঘরের ট্রাংক এবং তার নিকটাত্মীয়ের বাড়ি থেকে চালগুলো উদ্ধার করা হয়। এসময় ইউপি সদস্য পালিয়ে যান। পরে অবশ্য তার হদিস মেলে পাশের একটি বাড়ির ধানের গোলার মধ্যে।
এছাড়া এলাকার ঋষিপাড়া থেকেও বিক্রি করা চালও উদ্ধার করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এলাকার হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিএফের চাল ইউপি চেয়ারম্যানের কাছ থেকে জোর করে ভাগ করে নিয়ে আসেন ইউপি সদস্য রেজাইল ইসলাম। এলাকায় এনে এ চাল সাত থেকে আট কেজি করে বিতরণ করে বাকিটা নিজ বাড়ি এবং নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে লুকিয়ে রাখেন। কিছু অংশ পাশের ঋষিপাড়ায় বিক্রি করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ইউপি সদস্যের বাড়ির রান্নাঘর, ট্রাংকে লুকিয়ে রাখা এবং ঋষিপাড়ায় বিক্রি করা চালও উদ্ধার করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযান চলছে।
এ বিষয়ে ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার এস এম রেজাউল ইসলামের মোবাইলে বার বার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। পরে জানা যায়, পাশের একটি বাড়ির ধানের গোলার মধ্যে তিনি পালিয়ে আছেন। পরে গোলা থেকে বের করে তার সামনে উদ্ধার করা চালের সিজার লিস্টের কাজ শুরু হয়।
এ বিষয়ে সাতক্ষীরার সহকারী কমিশনার (রাজস্ব শাখা) মো. আক্তার হোসেন বলেন, সরকারি চাল আত্মসাতের অভিযোগে রেজাউলের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অভিযান এখনো শেষ হয়নি। অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো যাবে।

রাতে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউপি সদস্য রেজাউল ইসলামের বাড়িতে অভিযান চালান। এ সময় তার বাড়ি থেকে ১৩ বস্তা সরকারি ভিজিএফের চাল জব্দ করা হয়। মেম্বার চালগুলো বিতরণ না করে আত্মসাতের জন্য রেখে দিয়েছিলেন বলে ওসি জানান।

আরও পড়ুন