প্রতিবন্ধী রিপনের ব্যবসা

আপডেট: 02:07:26 21/03/2018



img

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বাজার গোপালপুর গ্রামের বাক প্রতিবন্ধী রিপন হোসেন এখন কারো মুখাপেক্ষী না। কথা না বলতে পারলেও চায়ের দোকান চালিয়ে কয়েক বছর ধরে ব্যবসা করে চলেছেন তিনি।
বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, সদর উপজেলার মধুহাটি ইউনিয়নের বাজার গোপালপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে রিপন হোসেন জন্মগত বাক-প্রতিবন্ধী। শিশুকালেই লেখাপড়ার প্রতি ছিল তার আগ্রহ। কিন্তু কথা বলতে না পারার কারণে তিনি বেশি দূর এগোতে পারেননি। শিখেছেন হিসাব নিকাশ ও মানুষের নাম লেখা।
ছেলের এমন অবস্থায় পরিবারের অবিভাবকেরা ছিলেন চিন্তিত। একপর্যায়ে গ্রামের বাজারেই একটি চায়ের দোকান দিয়ে তিনি ব্যবসা শুরু করেন। প্রথম দিকে ব্যবসা করতে পারা-না পারা নিয়ে চিন্তায় ছিলেন তার অভিভাবকেরা। কিন্তু প্রথম দিকে একটু সমস্যা মনে হলেও ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ব্যক্তির মতোই ব্যবসা করে চলেছেন। দোকানের বিক্রেতাদের সঙ্গে ইশারা-ইঙ্গিত আর লেখনির মাধ্যমে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। স্বাভাবিক আর দশজন ব্যবসায়ীর মতোই চালাচ্ছেন ব্যবসা। এই ব্যবসায় সংসারও চলছে ভালোভাবে।
স্থানীয় ব্যবসায়ী মহিউদ্দিন বলেন, ‘অনেকে প্রতিবন্ধীদের অবহেলা করেন। কিন্তু একটু পরিচর্যা পেলে তারাও স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারেন। রিপনই তার প্রমাণ।’