মণিরামপুরে সোনার দোকানে চুরি, আটক চার

আপডেট: 05:58:06 11/12/2017



img
img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুর বাজারে ‘স্মৃতি জুয়েলার্স’ নামে এক সোনার দোকানে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে।
রোববার রাতে উপজেলা ভূমি অফিসের সামনের ওই দোকানের পাশের ‘জিসান স্টোরের’ (স্টেশনারি) তালা ভেঙে চোরেরা দোকানটিতে ঢোকে।  পরে তারা সোনার দোকানের দেয়াল ও লোহার রড কেটে ভেতরে ঢুকে ১৬ ভরি সোনা, ১৪০ ভরি রুপা ও নগদ দুই লাখ ৩০ হাজার টাকাসহ মোট দশ লাখ দশ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে পালায়।
খবর পেয়ে সোমবার সকালে পুলিশ জিসান স্টোরের মালিক আব্দুল মতিন, দোকানের কর্মচারী রাজু আহম্মেদ, বাজারের নৈশপ্রহরী মোসলেম ঢালি ও ইসহাক নামে চারজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে।
থানার এসআই তপনকুমার চারজনকে হেফাজতে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এই ঘটনায় থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে তিনি জানান।
এদিকে জুয়েলারি দোকানে চুরির ঘটনা শুনে মণিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু, পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ কাজী মাহমুদুল হাসান, থানার ওসি মোকাররম হোসেন ও ইনসপেক্টর (তদন্ত) এনামুল হক ঘটনাস্থলে গেছেন। এসময় তারা দোকানের মালিক কৃষ্ণকুমার ঘোষকে সান্ত্বনা দেন।
স্মৃতি জুয়েলার্সের মালিক কৃষ্ণকুমার ঘোষ জানান, রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে তিনি দোকান বন্ধ করে বাসায় ফেরেন। সকাল সাড়ে আটটার দিকে পাশের দোকানদার জিসান স্টোরের মালিক আব্দুল মতিন তাকে ফোন করে দোকান চুরির খবর দেন।
মণিরামপুর থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) এনামুল হক বলেন, ‘চুরির ঘটনার সাথে জড়িতরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এটা একদিনের কাজ না। তারা আগেও জিসান স্টোরে এসেছে।’
সেখান থেকেই পরিকল্পনাটি হয়েছে বলে ধারণা করেন এই কর্মকর্তা।
প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরপরই এই কৃষ্ণকুমার ঘোষদের মোহনপুরের বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছিল। ওইসময় ডাকাতরা সোনার অলঙ্কার ও নগদ টাকাসহ প্রায় ২০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

আরও পড়ুন