ঐক্যফ্রন্ট হঠাৎ গজিয়ে ওঠা জোট : ইনু

আপডেট: 09:34:14 20/10/2018



চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ড. কামাল হোসেন বাংলাদেশের গণতন্ত্রে রাজাকার, জঙ্গি ও অপরাধীদের আবার আমদানি-পুর্নবাসনে ওকালতি শুরু করেছেন। বিএনপি-জামায়াত কামাল হোসেনকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে।
আজ শনিবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় জেলা জাসদের সভাপতি এম সবেদ আলীর বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী একথা বলেন।
এসময় কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় জাসদ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রী এরপর আলমডাঙ্গা সরকারি হাইস্কুল মাঠে উপজেলা জাসদ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।
তিনি বলেন, নিয়ম-কানুন নিয়ে কোনো রাজনৈতিক দলের অন্য কোনো দলের সঙ্গে সংলাপের সুযোগ নেই। আইন-কানুন বদলের প্রয়োজন মনে করলে ১৪ দলীয় বা মহাজোট নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বসবে।
তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট হঠাৎ গজিয়ে ওঠা একটি জোট। এই ফ্রণ্টের দাবির সার কথা হচ্ছে, সাজাপ্রাপ্ত ও দুর্নীতিগ্রস্ত এবং হত্যা-খুনের আসামি তারেক রহমান ও বেগম খালেদা জিয়াসহ কারাগারে বন্দি জঙ্গি, সন্ত্রাসী, ৭১ এর খুনি, ৭৫ এর খুনি, একুশে আগস্টের খুনি, মানুষ পোড়ানো খুনিসহ তাবৎ অপরাধীদের মুক্তির দাবি তাদের প্রধান দাবি। এবং দ্বিতীয় দাবি রূপরেখাহীন গায়েবি অবয়বহীন তথাকথিত নির্দলীয় সরকারের প্রস্তাবের নামে ভুতের সরকার। তারা অস্বাভাবিক সরকার প্রতিষ্ঠার পাঁয়তারা করছে।’
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আইনটি সংসদে পাস হয়েছে সাইবার জগৎ বা ডিজিটাল সমাজের নিরাপত্তা বিধানের জন্য, নারী-শিশুসহ রাষ্ট্রের নিরাপত্তায়। এর সঙ্গে গণমাধ্যমের কোনো সম্পর্ক নেই।
তথ্যমন্ত্রী দাবি করেন, বৃহত্তর কুষ্টিয়া অঞ্চলের অপরাধীরা গত দশ বছরে অন্ধকার থেকে আলোয় ফিরে এসেছে। এলাকায় অনেক উন্নতি হয়েছে।
আওয়ামী লীগ সরকার আবার ক্ষমতায় গেলে গোয়ালন্দ পয়েন্টে দ্বিতীয় পদ্মাসেতু তৈরি করা হবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।
পরে মন্ত্রী আলমডাঙ্গা উপজেলা জাসদের আয়োজনে সরকারি হাইস্কুল ফুটবল মাঠে জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।
উপজেলা জাসদ সভাপতি মোল্লা গোলাম সরোয়ারের সভাপতিত্বে জনসভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে মহাজোটের মনোনয়নপ্রত্যাশী জেলা জাসদের সভাপতি এম সবেদ আলী।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী সভাপতি রবিউল আলম, কেন্দ্রীয় সহসভাপতি শফিউদ্দিন মোল্লা, জেলা সাধারণ সম্পাদক আকসিজুল ইসলাম রতন প্রমুখ।

আরও পড়ুন