সাতক্ষীরায় 'বন্দুকযুদ্ধে' যুবলীগ নেতাসহ নিহত ২

আপডেট: 06:20:00 15/07/2018



img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আব্দুল কালাম আজাদ ও দেলোয়ার হোসেন নামে দুইজন নিহত হয়েছেন; যাদের মাদক ব্যবসায়ী বলা হচ্ছে। নিহতদের একজন স্থানীয় যুবলীগ নেতা।
পুলিশের দাবি, এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তাদের পাঁচ সদস্য। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে তিন কেজি গাঁজা, ২০ বোতল ফেনসিডিল, একটি ওয়ান শ্যুটারগান, এক রাউন্ড গুলি ও চারটি মোবাইল সেট।
শনিবার (১৪ জুলাই) দিনগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে সদর উপজেলার বাশদাহ ইউনিয়নের কয়ার বিল এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
নিহত আব্দুল কালাম আজাদ জেলার কলারোয়া উপজেলার কেড়াগাছি ইউনিয়নেরআবুল কাসেমের ছেলে ও কেড়াগাছি ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি এবং দেলোয়ার হোসেন বাশদাহ গ্রামের বাসিন্দা।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মারুফ আহমেদ বলছেন, শনিবার (১৪ জুলাই) বিকেলে বাশদাহ বাজার এলাকা থেকে দুই কেজি গাঁজা ও ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ কালাম ও দেলোয়ারকে আটক করেন ডিবি পুলিশের সদস্যরা। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেন, রাতেই সীমান্ত দিয়ে মাদকের বড় একটি চালান দেশে আসবে। তথ্য মতে, তাদের নিয়ে রাত সাড়ে তিনটায় সীমান্তবর্তী বাশদাহ ইউনিয়নের কয়ার বিলে অভিযানে যায় সদর থানা ও ডিবি পুলিশের একটি দল। সেখানে পৌঁছানো মাত্র পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে মাদক চোরাকারবারিরা। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এক পর্যায়ে কালাম ও দেলোয়ার দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় গোলাগুলির মধ্যে পড়েন। মাদক চোরাকারবারীরা পিছু হটতে বাধ্য হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে কালাম ও দেলোয়ারকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি আরো জানান, অভিযানে সদর থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশের পাঁচ সদস্য সামান্য আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন