প্রেমিকার মৃত্যুর খবর শুনে প্রেমিকের আত্মহত্যা

আপডেট: 09:46:42 17/11/2018



img
img

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : বাবা-মা প্রেমের স্বীকৃতি না দেওয়ায় স্মৃতি খাতুন (১৬) নামে এক কিশোরী নিজ শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। পুড়ে আহত হওয়ার নয় দিন পর শনিবার ভোরে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা গেছে।
এ দিকে এ ঘটনার জানার পর শনিবার সকাল দশটার দিকে তার প্রেমিক যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে আলামিন (১৩) যশোরের এক আত্মীয়ের বাসায় বিষপানে আত্মহত্যা করে।
এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, কলারোয়া উপজেলার পাটুলিয়া গ্রামের নূর ইসলামের মেয়ে স্মৃতি যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শিমুলিয়া হাইস্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়তো। সেই সুবাদে একই ক্লাসের ছাত্র আলামিনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি স্মৃতির বাবা-মা জানতে পেরে বকাঝকা দিয়ে তাকে মামাবাড়ি উপজেলার পাঁচপোতা গ্রামে রেখে আসেন। গত ৯ নভেম্বর স্মৃতি বাবা-মায়ের ওপর অভিমান করে মামাবাড়ির ছাদে উঠে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।
স্বজনরা তখনই তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখান থেকে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে ঢাকার বারডেমে স্থানান্তর করা হয়। ওই হাসপাতালে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোরে স্মৃতি মারা যায়।
এদিকে, প্রেমিকার মৃত্যুর খবর শুনে আজ সকালে যশোর সদরের রূপদিয়া এলাকায় তার এক আত্মীয়ের বাড়িতে বিষপান করে আত্মহত্যা করে প্রেমিক আলামিন। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) ইসরাইল হোসেন।

আরও পড়ুন