শ্রমিকলীগ নেতাকে মারপিট, অভিযোগ জিসানের প্রতি

আপডেট: 06:10:01 21/10/2018



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর জেলা ইজিবাইক শ্রমিকলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মুন্না ইসলামকে হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।
এই ঘটনার জন্য জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছালছাবিল আহমেদ জিসান ও তার লোকজনকে অভিযুক্ত করেছেন আক্রান্ত ব্যক্তি। তবে জিসান তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলছেন।
মুন্না অভিযোগ করে বলেন, ‘আজ রোববার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে আমাকে বাড়ি থেকে ডেকে মিশনপাড়ায় জিসানের অফিসে এনে মুখে গামছা বেঁধে মারপিট করা হয়। মণিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা গ্রামে আমার আত্মীয়ের (বেয়াই) কাছে স্থানীয় একজন টাকা পেত। বিয়াই তার টাকা পরিশোধ করে দিয়েছে। কিন্তু তাদের প্রতিপক্ষরা যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জিসানের কাছে অভিযোগ করে। এঘটনায় শুক্রবার আমার মেয়ে-জামাই জুয়েল রানাকে জিসান তার লোকজন দিয়ে তুলে নিয়ে যায়। পরে আমরা জিসানের সাথে আলোচনা করে জুয়েলকে ছাড়িয়ে নিয়ে আসি। এই নিয়ে ঝাঁপা গ্রামে প্রতিপক্ষের সাথে বিয়াই আলাউদ্দিনের কথাকাটাকাটি হয়। ঘটনার জের ধরে আজ ভোরে জিসান তার লোকজন নিয়ে আমাকে তুলে নিয়ে মারপিট করে।’
তবে, কাউকে ধরে এনে মারপিটের ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করেছেন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জিসান।
তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি বা আমার সহযোগীদের কেউ এমন কোনো ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। ইজিবাইক চালকদের অন্তর্দ্ব›েদ্বর কারণে কেউ ওই ব্যক্তিকে মারপিট করে থাকতে পারে। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হয়তো হেয় করার জন্য ঘটনার দায়ভার আমার কাঁধে দিচ্ছে।’
কোতয়ালী থানার ওসি অপূর্ব হাসান সুবর্ণভূমিকে বলেন, ‘এরকম ঘটনা আমার জানা নেই।’

আরও পড়ুন