লোহাগড়ায় ‘মিথ্যা মামলার’ প্রতিবাদ

আপডেট: 03:55:42 19/09/2018



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : লোহাগড়া উপজেলার আট নম্বর দিঘলিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান লতিফুর রহেমান পলাশ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতাদের নামে দায়ের করা ‘মিথ্যা ও হয়রানিমূলক’ মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।
বুধবার দুপুর একটায় এলাকাবাসীর আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সামনে ৪৫ মিনিট স্থায়ী মানববন্ধনে দলীয় নেতাকর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার সহস্রাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ আব্দুর রহিম সুজন, শরিফুল ইসলাম, শ্রমিকলীগ নেতা মোজাম খান, মিজানুর রহমান মিন্টু, শেখ নজরুল ইসলাম বাদশা, আওয়ামী লীগ নেতা মঞ্জুরুল করিম মুন, ওহিদুর সরদার, এম এ কাইয়ুম চুন্নু, আবু সাঈদ, শেখ মাসুদুজ্জামান প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করেন, সাবেক চেয়ারম্যান পলাশ হত্যার ঘটনায় প্রকৃত খুনিদের বাদ দিয়ে জেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতাদের নামে হয়রানি এবং ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। পরে একটি বিরাট বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
একই দাবিতে পৌর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন হয়।
এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরীফ মনিরুজ্জামান।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, চাঞ্চল্যকর এই মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য মামলার বাদী নিহত চেয়ারম্যানের বড় ভাই সাইফুর রহমান হিলু আওয়ামী লীগ নেতাদের নামে উদ্দেশ্যমূলকভাবে হয়রানির জন্য এ মামলা দায়ের করেছেন। এই মিথ্যা মামলা থেকে আওয়ামী লীগ নেতাদের নাম প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান তিনি।
সম্মেলনে বিপুল সংখ্যক স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি দিঘলিয়া ইউপির তৎকালীন চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান পলাশকে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে একদল দুর্বৃত্ত প্রকাশ্যে কুপিয়ে ও গুলি করে নৃশংসভাবে খুন হয়। এ ঘটনায় চেয়ারম্যানের বড় ভাই সাইফুর রহমান হিলু বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামি করে লোহাগড়া থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলাটি এখনো তদন্তধীন রয়েছে।

আরও পড়ুন