শৈলকুপায় স্কুলের গাছ কাটায় এলাকায় ক্ষোভ

আপডেট: 06:18:08 21/01/2018



img

শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : শৈলকুপার বিএলকে মীর ইসমাইল হোসেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। আর এই কাজে মদত দেওয়ার অভিযোগ উঠছে আওয়ামী লীগ নেতা মীর শাহাবুদ্দীনের বিরুদ্ধে।
শুক্রবার স্কুল বন্ধের সুযোগ নিয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি তিনটি মেহগনি ও একটি জামগাছ কেটে বিক্রি করেন বলে অভিযোগ। গাছ কাটায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. গহর আলী জানান, সভাপতি স্কুলের অর্থনৈতিক প্রয়োজন ও আসবাবপত্র তৈরির জন্য রেজুলেশন করে গাছ কাটার অনুমতি দিয়েছেন। তবে এ ব্যাপারে সাধারণ শিক্ষকরা কিছুই জানেন না বলে তিনি জানিয়েছেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক শিক্ষক জানান, পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা প্রধান শিক্ষকের যোগসাজসে গাছ কেটেছেন। তবে গাছ কাটার বিষয়টি সভাপতি মীর ইসমাইল হোসেন টেলিফোনে শুধু জানতে পেরেছেন।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে ব্যক্তিস্বার্থ হাসিল করতেই এ গাছ কাটা হয়েছে। বিষ্ণুপুর গ্রামের ধোলাই ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আমিনের নেতৃত্বে এ গাছ কাটা হয়। অভিযুক্ত ধোলাইয়ের বিরুদ্ধে শৈলকুপা থানায় নানা অভিযোগে ১০-১৫টি মামলা রয়েছে।
শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উসমান গনি জানান, স্থানীয়ভাবে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পরিচালনা পরিষদের অনুমতিতে শুধুমাত্র রেজুলেশন করে গাছ কাটতে পারেন না। পুলিশ কেটে ফেলা গাছ উদ্ধার করে প্রধান শিক্ষকের হেফাজতে রেখে এসেছে। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন