কলারোয়ায় ‘সততা স্টোরের’ সাফল্য

আপডেট: 01:40:10 24/09/2017



img

কে এম আনিছুর রহমান, কলারোয়া (সাতক্ষীরা) : কলারোয়ার সোনাবাড়ীয়া সম্মিলিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্থাপিত ‘সততা স্টোর’ শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।
সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে সততার বীজ বপন করার লক্ষ্যে স্টোরটি স্থাপন করা হয়। গত ২১ আগস্ট খুলনা বিভাগীয় দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক মো. আবুল হোসেন এই সততা স্টোরটি উদ্বোধন করেন।
ওই দিন থেকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। সম্প্রতি সরেজমিনে ‘সততা স্টোরে’ শিক্ষার্থীদের কেনাকাটা করতে দেখা যায়।
সততা স্টোর সম্পর্কে সোনাবাড়ীয়া সম্মিলিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আখতার আসাদুজ্জামান (চান্দু) বলেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশনের সহযোগিতায় আমরা স্কুলে সততা স্টোর চালু করেছি। এখান থেকে শিক্ষার্থীরা খাতা, কলম, কেক, বিস্কুট, জুস, টকলেটসহ ১৩-১৪ রকমের পণ্য কিনতে পারে। প্রত্যেকটা পণ্যে নির্ধারিত মূল্য লেখা রয়েছে। শিক্ষার্থীরা পণ্য কিনে নিজেরাই দাম শোধ করে নির্ধারিত বক্সে।’
তিনি বলেন, ‘আমরা গত আগস্টে সততা স্টোরটি চালু করি। অল্প সময়ের মধ্যে এর সাফল্য দেখে বেশ অবাক হয়েছি। শিক্ষার্থীদের আগ্রহ আমাদেরকে মুগ্ধ করছে।’
সততা স্টোরের তত্ত্বাবধায়ক স্কুলের সহকারী শিক্ষক স্বপনকুমার চৌধুরী ও সেলিম রেজা জানান, প্রতিদিন বহু শিক্ষার্থী এখান থেকে বিভিন্ন জিনিস কিনছে। বেশ কম দামে শিক্ষার্থীরা পণ্য কিনতে পারছে।
পূরবী রায়, সেহাব বাবু, সততা পারভীন, আসিফ ইকবাল ও স্বাধীনসহ কয়েকজন শিক্ষার্থী বলছে, স্কুলে সততা স্টোর চালু হওয়ায় তারা আনন্দিত। শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় সব খাতা, কলমসহ আনুষঙ্গিক জিনিস তারা এখান থেকে খুব সহজে নির্ধারিত দামে সংগ্রহ করতে পারছে।
বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে কলারোয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুল হামিদ বলেন, ‘সোনাবাড়ীয়া হাইস্কুলের সততা স্টোরের সাফল্যের কথা শুনে আমিও অভিভূত। আশা করি এই সততা স্টোরের শিক্ষা পরবর্তীকালে শিক্ষার্থীদের ব্যক্তি জীবনেও প্রভাব ফেলবে। আমরা উপজেলার আরো তিনটি প্রতিষ্ঠানে সততা স্টোর চালু করার উদ্যোগ নিয়েছি। এভাবে পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সততা স্টোর চালু করা হবে।’

আরও পড়ুন