স্বচ্ছতা সততার সঙ্গে কাজ করতে চান যশোরের ডিসি

আপডেট: 08:22:12 14/03/2018



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের নতুন জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল এখানে উৎপাদিত খেজুরগুড়ের মান ঠিক রেখে বাজারজাত করতে দরকারি পদক্ষেপ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। একই সঙ্গে তিনি ‘নকশিকাঁথা ফুলের মেলা, খেজুরগুড়ের যশোর জেলা’ ব্র্যান্ডিং নিয়ে কাজ করার অঙ্গীকারও করেছেন।
নতুন জেলা প্রশাসক আজ বুধবার বিকেলে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করছিলেন। কালেক্টরেট সম্মেলন কক্ষে এই মতবিনিময় হয়।
১১ মার্চ যশোরের ৩১তম জেলা প্রশাসক হিসেবে আব্দুল আওয়াল দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এর আগে তিনি ঠাকুরগাঁয়ে জেলা প্রশাসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
জেলা প্রশাসন আয়োজিত মতবিনিময় সভায় আবদুল আওয়াল স্বচ্ছতা, সততা ও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ বজায় রেখে কাজ করার অঙ্গীকার করেন। যশোরের উন্নয়নে সবার সহযোগিতা চান। বলেন, ‘সমন্বিত প্রচেষ্টা ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব না।’
তিনি বলেন, ‘আশা রাখি, এ জেলার জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে সকল উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারবো।’
সভায় নয়া জেলা প্রশাসককে গণমাধ্যমকর্মীরা যশোরের নানা সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা বলেন।
প্রতিউত্তরে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘যশোরের ভৈবর নদ খননে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ভাঙাচোরা রাস্তা সংস্কার করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করবো।’
মতবিনিময় সভায় সূচনা বক্তব্য দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হুসাইন শওকত।
গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে থেকে মতামত তুলে ধরেন প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, সাবেক সভাপতি একরাম-উদ-দ্দৌল্লা, মিজানুর রহমান তোতা, ফকির শওকত, সম্পাদক এসএম তৌহিদুর রহমান, ফখরে আলম, ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, সাইফুল ইসলাম সজল, মনোতোষ বসু, সাইফুর রহমান সাইফ, সাজেদ রহমান, হাবিবুর রহমান মিলন, সাজ্জাদ গনি খাঁন রিমন, মনিরুল ইসলাম, ইন্দ্রজিৎ রায়, প্রণব দাস, মনিরুজ্জামান মুনির প্রমুখ।

আরও পড়ুন