লোহাগড়ায় খুনের জেরে ভাংচুর লুটপাট, আটক ৬

আপডেট: 01:11:45 23/04/2018



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : লোহাগড়া উপজেলার পারমল্লিকপুর গ্রামে খায়ের মৃধা খুনের জের ধরে গত শনিবার রাতে ও রোববার সকালে প্রতিপক্ষের অন্তত ২০টি বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। হত্যা ও লুটপাটে জড়িত সন্দেহে পুলিশ ছয়জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার আদালতে পাঠানো হয়।
স্থানীয়রা বলছেন, পারমল্লিকপুর গ্রামে ইউপি মেম্বর উজ্জ্বল ঠাকুর সমর্থিত লোকদের সঙ্গে একই গ্রামের প্রাক্তন মেম্বর হিমায়েত হোসেন হিমুর লোকদের দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্ব›দ্ব চলে আসছে। এর জের ধরে গত শনিবার উভয় পক্ষের সংঘর্ষে উজ্জ্বল ঠাকুর পক্ষের খায়ের মৃধা নামে এক টিউবওয়েল মিস্ত্রি খুন হন। এ ছাড়া ওই দিন আরো দশ জন আহত হন; যাদের মধ্যে পাঁচজন গুলিবিদ্ধ।
খায়ের হত্যার জের ধরে ওইদিন রাতে ও রোববার সকালে হিমু মেম্বর সমর্থিত হাসান বিশ্বাস, মোর্তজা বিশ্বাস, রেজাউল বিশ্বাস, হাই শেখ, হাফিজ শেখ, এরশাদ শেখ, মোবতার হোসেন, মুজিবর রহমান, রাজা মৃধা, ইকবাল মৃধা, তজি মৃধা, শাহাদত শেখ, মিজানুর রহমান চুন্নু, আমিনুর শেখ, কামরুল মৃধা, হাবি মৃধা, বাবুল বিশ্বাসের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট হয়। লুটেরারা এ সব বাড়ি থেকে টাকা, সোনার গহনা, গরু-ছাগল, টিভি-ফ্রিজ, খাট-পালং, মোবাইল ফোন, টিউবওয়েল, পানির পাম্প, কাপড়-চোপড়সহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এ ছাড়া তারা ঘর-বাড়ির টিনের চালা ও বেড়া, আসবাবপত্র ভাংচুর করে।
এ সব ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ওই গ্রামের মিজানুর রহমান চুন্নু, মহসিন মোল্যা, আবুল কালাম, বারিক শেখ, আমিনুর রহমান বাবলু, আবুল কালাম আজাদ নামে ছয়জনকে আটক করে।
লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, হত্যা ও লুটপাটে জড়িত সন্দেহে ছয়জনকে আটক করে ৫৪ ধারায় আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন