কালভার্ট ধস : মণিরামপুর-ঝিকরগাছা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার শঙ্কা

আপডেট: 03:14:03 25/10/2017



img

আনোয়ার হোসেন, মণিরামপুর (যশোর) : মণিরামপুরে  সড়ক ও জনপথ বিভাগের একটি ব্যস্ত সড়কের কালভার্ট ভেঙে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। মণিরামপুর-ঝিকরগাছা সড়কের হাকোবা ঈদগাহের অদূরে কালভার্টটির অবস্থান।
গত চারদিন ধরে কালভার্টটির অর্ধেক অংশ ভেঙে পড়ে আছে। দেবে গেছে কালভার্টটির বাকি অংশ। ফলে ঝুঁকি নিয়ে হাজারো মানুষকে পাড়ি দিতে হচ্ছে সড়কটি। দ্রুত সংস্কার না হলে যে কোনো সময় কালভার্টটির বাকি অংশ ভেঙে পড়তে পারে বলে স্থানীয়দের আশঙ্কা। এমনটি হলে উপজেলা সদরের সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে পশ্চিমাঞ্চলের লক্ষাধিক মানুষের সড়ক যোগাযোগ।
বুধবার সরেজমিন গিয়ে পথচারীদের ঝুঁকি নিয়ে কালভার্টটি পারাপার হতে দেখা গেছে। 
সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতাধীন মণিরামপুর থেকে ঝিকরগাছা প্রায় ১৭ কিলোমিটার রাস্তাটি পাকা করা হয় ২০০১ সালে। কয়েকবছর আগে সড়কটি ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। মাস দুয়েক আগে সড়কটি সংস্কার হওয়ায় ছোটখাটোসহ ভারি যানবাহনের চলাচল বেড়েছে। সড়কটি ধরে হাজারো মানুষ বাইসাইকেল, বাইক, ভ্যান, ইজিবাইক ও টেকারযোগে গন্তব্যে পৌঁছায়। সম্প্রতি দুই দিনের ভারি বর্ষণে সড়কটির হাকোবা ঈদগাহ-সংলগ্ন এলাকায় একটি কালভার্টের অর্ধেক অংশ ভেঙে পড়ে। এখন বাকি অংশ দেবে গিয়ে পুরো কালভার্টটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
উপজেলার মাহমুদকাটি গ্রামের মোটরসাইকেলচালক ফয়েজ উদ্দিন বলেন, ‘কালভার্টটি ভেঙে যাওয়ায় চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। আমাকে দিনে কয়েকবার মণিরামপুর বাজারে আসা-যাওয়া করা লাগে। প্রত্যেকবার ঝুঁকি নিয়ে কালভার্টটি পার হতে হচ্ছি।’
শেখপাড়া গ্রামের ঘের ব্যবসায়ী মিনারুল ইসলাম বলেন, ‘কালভার্টটি ভেঙে যে অবস্থা হয়েছে, তাতে দুটো গাড়ি একসঙ্গে পার হতে গেলেই বিপদ ঘটতে পারে। এমনকী প্রাণহানির আশঙ্কাও রয়েছে।’
রঘুনাথপুর গ্রামের কমল মণ্ডল ও গুরু মণ্ডল জানান, কালভার্টটি অনেক পুরনো হওয়ায় এর আয়ু শেষ হয়ে গেছে। দ্রুত এটি সংস্কার করা দরকার।
যশোর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘লোক পাঠিয়ে খবর নেওয়া হচ্ছে।’

আরও পড়ুন