আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়লেন ছাত্রলীগ নেতা

আপডেট: 09:31:01 20/07/2018



img

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালামকে এক গৃহবধূর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরার দাবি করেছেন স্থানীয় জনতা। তারা ওই ছাত্রনেতাকে পিটুনি দিয়ে আটকে রাখেন। খবর পেয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের এক নেতা তাকে ছাড়িয়ে নেন।
ঘটনাটি ঘটেছে আজ শুক্রবার দুপুরে। ছাত্রলীগ নেতা আবদুস সালাম উপজেলার ক্ষেত্রপাড়া গ্রামের আবদুর রহমান মোড়লের ছেলে।
এলাকাবাসী জানান, কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের ওই নেতা উপজেলার শ্রীপতিপুর এলাকার একটি টালি কারখানার ম্যানেজারের স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ওই ব্যক্তির বাড়ি বরিশাল। তিনি দীর্ঘদিন ধরে শ্রীপতিপুর এলাকায় বসবাস করছেন। 
তারা বলছেন, শুক্রবার জুমার নামাজ চলার সুযোগে ছাত্রলীগ নেতা ওই বাড়িতে যান। সেখানে গৃহবধূর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় তাকে ধরে ফেলেন স্থানীয় লোকজন। তারা সালামকে পিটুনি দিয়ে আটকে রাখেন।
বিষয়টি জানাজানি হলে উপজেলা ছাত্রলীগের এক নেতা গিয়ে জনতার হাত থেকে মুক্ত করেন সালামকে। ছাত্রলীগ ওই নেতার বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিক নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ ওঠে। একই অভিযোগে ইতিপূর্বে তাকে কলারোয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ কমিটি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল।
এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে আবদুস সালামের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।
উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সায়িদ বলেন, ‘আমি এলাকার বাইরে ছিলাম। কলারোয়ায় এসে এমন একটি বিষয় শুনছি। বিস্তারিত জানি না। সেখানে নাকি প্রশাসনের লোকজন ছিল। তবে ঘটনাটি সঠিক হলে সালামকে বহিষ্কার করা হবে।’

আরও পড়ুন