চৌগাছায় প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

আপডেট: 01:25:52 25/09/2017



img
img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের চৌগাছায় নাজমা বেগম (২৫) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী ও একটি স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্যকে নির্যাতনের পর মুখে কীটনাশক ঢেলে হত্যার অভিযোগ করা হচ্ছে।
নাজমা উপজেলার বহিলাপাতা গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী একরামুলের স্ত্রী এবং একই উপজেলার বল্লভপুর গ্রামের মৃত আজগর আলীর মেয়ে।
তিনি বহিলাপোতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ছিলেন।
নাজমার ছয় বছর বয়সী প্রতিবন্ধী ছেলে রয়েছে। সে একই স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্র।
সোমবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে চৌগাছা হাসপাতালে নাজমার মৃত্যু হয়।
নিহতের মামা সামাউল ইসলাম ও বোনাই আরমান আলী জানান, কয়েক বছর আগে পিতা-মাতাহীন এতিম নাজমার বিয়ে হয় উপজেলার বহিলাপোতা গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে একরামুলের সঙ্গে। বিয়ের পরে বাইসাইকেল, ঘড়িসহ আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র দেওয়া হয়। তবুও নাজমার শ্বশুর-শাশুড়ি যৌতুকের জন্য নাজমাকে নিপীড়ন করতেন। চলতি বছরের শুরুর দিকে নাজমার স্বামী একরামুল বিদেশ যাওয়ার জন্য টাকা যোগাড় করে এনে দিতে বলেন। সেসময় নাজমার বাবার বাড়ির জমির অংশ বিক্রি করে তিন লাখ টাকা দিয়ে একরামুলকে বিদেশ পাঠানো হয়। এরপরও দুই-তিন মাস আগে নাজমার শ্বশুর ও শাশুড়ি তাকে মারধর করে। আত্মীয়রা এসে মীমাংসা করে দিয়ে যান। সোমবার সকালে মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে হাসপাতালে এসে তারা দেখেন, নাজমার মৃত্যু হয়েছে।
তারা জানান, নাজমার গলায় এবং শরীরে নির্যাতনের দাগ রয়েছে। তাদের অভিযোগ, শ্বশুর-শাশুড়ি নির্যাতন করে মেরে ফেলার পর নাজমার মুখে কীটনাশক ঢেলে দিয়েছেন।
তারা জানান নাজমা যখন খুবই ছোট তখন একইদিনে তার পিতা-মাতা বিদ্যুৎস্পর্শে মারা যান। এরপর চাচি শেফালি খাতুনের কাছে পালিত হন তিনি।
স্বজনরা জানান, ‘হত্যার’ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দেওয়া হবে।
নাজমার শ্বশুর আলাউদ্দিন জানান, ‘রাত বারটার দিকে সে বিষ খায়। রাত একটায় হাসপাতালে নিয়ে আসি। সকালে তার মৃত্যু হয়।’
হত্যার অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ‘আমি যা বলেছি এর বেশি কিছু জানি না।’
হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত আব্দুল হাই বলেন, ‘ভোর সোয়া চারটায় নাজমাকে হাসপাতালে আনা হয়।’
নাজমার চাচাতো ভাই ও সুখপুকুরিয়া ইউপির বল্লভপুর ওয়ার্ড সদস্য সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘মৃতদেহ দেখে কোনোভাবেই আত্মহত্যা মনে হচ্ছে না। আমরা এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’
চৌগাছা থানার ওসি খন্দকার শামীম উদ্দিন বলেন, ‘লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।’

আরও পড়ুন