দেশসেরা অ্যাথলেট শাম্মির স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা

আপডেট: 01:29:17 19/08/2018



img
img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহে ডাকাতদলের দায়ের কোপে সাইফুল ইসলাম (৩২) নামে এক সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন।
শনিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামের হাওনঘাটা এলাকায় এই হত্যার ঘটনা ঘটে।
নিহত সেনাসদস্য ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামের হাবিবুর রহমান হাবুর ছেলে। তিনি টাঙ্গাইলের ঘাটাইল সেনানিবাসের মেডিকেল কোরের সৈনিক ছিলেন।
এছাড়া নিহত সাইফুলের স্ত্রী দেশসেরা নারী অ্যাথলেট শাম্মি আক্তার। দেশ-বিদেশে ক্রীড়া নৈপুণ্য প্রদর্শন করে খ্যাতি অর্জন করেছেন এই শাম্মি আক্তার।
নিহত সাইফুল ও শাম্মির দুই সন্তান রয়েছে। তাদের নাম আবু হামজা ও আবু হুরাইরা।
নিহতের ছোট ভাই নৌবাহিনীর সদস্য মনিরুল ইসলাম জানান, শনিবার রাতে তারা বদরগঞ্জ বাজার থেকে সাইফুলের শ্বশুর শামসুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে তিনজন এক মোটরসাইকেলে নিজ গ্রামে ফিরছিলেন। গ্রামের কাছাকাছি হাওনঘাটা মাঠের মধ্যে পৌঁছালে ১০-১২ জনের ডাকাতদল জামগাছ কেটে রাস্তায় ফেলে তাদের গতিরোধ করে। এ সময় ডাকাতদলের সঙ্গে বাদানুবাদের এক পর্যায়ে তারা প্রথমে সাইফুলের হাতে ও পরে গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে আনা হয়। রাত সাড়ে দশটার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রিন্স তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণজনিত কারণে হাসপাতালে আনার আগেই সাইফুলের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান ডা. প্রিন্স।
খবর পেয়ে ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান হাসপাতালে যান। তিনি দ্রুত হত্যাকারীদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন।
ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, দুর্বৃত্তদের ধরতে এলাকায় অভিযান শুরু হয়েছে।
এদিকে সেনাসদস্য সাইফুলের মৃত্যুর খবর বংকিরা গ্রামে পৌঁছালে শোকের ছায়া নেমে আসে। গ্রামের মানুষ দলে দলে সদর হাসপাতালে ভিড় করতে থাকেন।

আরও পড়ুন