খুলনায় এইচএসসি পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১৫৬২

আপডেট: 01:28:15 30/03/2018



img

জিয়াউস সাদাত, খুলনা : খুলনা জেলায় চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী বেড়েছে এক হাজার ৫৬২ জন। এর মধ্যে এইচএসসিতে বেড়েছে ৮৪৮ জন এবং এইচএসসি (বিএম) ৭১৪ জন। তবে, দাখিলে কমেছে আটজন।
আগামী ২ এপ্রিল এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে। জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, খুলনায় এ বছর ৪১টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার্থী ১৯ হাজার ৯৪৩ জন। ছয়টি কেন্দ্রে আলিমে এক হাজার ৩২৬ জন, ১৮টি কেন্দ্রে এইচএসসিতে (বিএম) চার হাজার ৪৪০ জন ও নগরীতে একটি কেন্দ্রে ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্ট্যাডিজে নয়জন পরীক্ষার্থী রয়েছে।
গেল বছর ৩৯টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল ১৯ হাজার ৯৯৫ জন, পাঁচটি কেন্দ্রে আলিমে এক হাজার ৩৩৪ জন, আটটি কেন্দ্রে এইচএসসিতে (বিএম) পাঁচ হাজার ১৫৪ জন। এ বছর এইচএসসি পরীক্ষার জন্য কেন্দ্র বেড়েছে দুটি। কেন্দ্র দুটি হচ্ছে ডুমুরিয়ার বান্দা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ফুলতলার জামিরা বাজার আসমোতিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এছাড়া আলিম পরীক্ষার জন্য কেন্দ্র বেড়েছে একটি। সেটি হচ্ছে ফুলতলার শিরোমণি আলিম মাদরাসা। এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী বেড়েছে এক হাজার ৫৬২ জন, এইচএসসিতে পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৮৪৮ জন, দাখিলে কমেছে আটজন, এইচএসসিতে (বিএম) বেড়েছে ৭১৪ জন।
এদিকে, গত ১৪ মার্চ খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জেলা প্রশাসনের এক সভায় এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় নগরীসহ উপজেলার কেন্দ্রগুলোর গেটে ছাত্রীদের দেহ তল্লাশির কাজে সহযোগিতায় একজন নারী শিক্ষিকা নিয়োগের জন্য অধ্যক্ষ এবং একজন নারী পুলিশ নিয়োগের জন্য পুলিশ কমিশনার ও পুলিশ সুপারকে অনুরোধ জানানো হয়। বলা হয়, পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছাড়া কোনো শিক্ষক মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবে না। পরীক্ষা চলাকালে বহিরাগত এবং স্থানীয় ব্যক্তিরা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা তত্ত্বাবধায়ক কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন এবং তিন সদস্যবিশিষ্ট ভিজিলেন্স টিম গঠন করতে হবে। পুলিশ প্রহরা ছাড়া কোনো অবস্থাতেই কেন্দ্রসমূহে প্রশ্নপত্রের প্যাকেট বহন করা যাবে না।