খুলনায় বিএনপি নেতাকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

আপডেট: 10:01:42 18/03/2018



img

খুলনা অফিস : জেলা বিএনপির সহ-ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম মোড়লকে (৪২) ‘গুম করা হয়েছে’ বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।
রোববার দুপুরে স্থানীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির পক্ষ থেকে এ অভিযোগ করা হয়।
শনিবার সন্ধ্যায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ডুমুরিয়া উপজেলার আটালিয়া এলাকা থেকে তাকে তুলে নেওয়া হয় জানিয়ে নজরুলের স্ত্রী সংশ্লিষ্ট থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান বলেন, ‘বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম মোড়ল শনিবার বিকেল পাঁচটার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার মাগুরঘোনা ইউনিয়নের বেতাগ্রামের নিজ বাড়ি থেকে একই উপজেলার আঠারো মাইল বাজারে যান। সেখান থেকে একটি ভাড়ার মোটরসাইকেল নিয়ে পাশের জেলা যশোরের কেশবপুরের মঙ্গলকোট এলাকায় ডাক্তার দেখাতে যান। ফেরার পথে সন্ধ্যায় ডুমুরিয়া উপজেলার আটালিয়া এলাকায় স্থানীয়রা দেখতে পান, তার ভাড়া করা মোটরসাইকেল, চাবি ও টুপি পড়ে রয়েছে। পরে মোটরসাইকলের মালিকের সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, ওই মোটরসাইকেলটিই নজরুল ভাড়া নিয়েছিলেন। এরপর নজরুলের সন্ধান করার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে তার মোবাইল ফোনে কল দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ করেও নজরুলের সন্ধান না পাওয়ায় শনিবার রাতেই তার স্ত্রী তানজিলা বেগম ডুমুরিয়া থানায় জিডি করেন।’
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নজরুল ছাত্রজীবনে ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি কখনো আইন বা সমাজবিরোধী কাজে জড়িত ছিলেন না। তিনি একজন মাদরাসাশিক্ষক। বিএনপির রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশ নিতে গিয়ে সরকারের রোষানলে পড়ে তিনি জেল খেটেছেন। কিন্তু এখন তার বিরুদ্ধে কোনো মামলায় ওয়ারেন্ট নেই। সারা দেশে একের পর এক বিরোধী মতাদর্শের রাজনৈতিক নেতাকর্মী ধারাবাহিকভাবে গুম-অপহরণের শিকার হওয়ায় নজরুলের জীবন নিয়ে উদ্বেগ ও শংকা প্রকাশ করা হয় লিখিত বক্তব্যে।
সংবাদ সম্মেলনে স্ত্রী তানজিলা বেগম তার স্বামী নজরুল ইসলাম মোড়লকে প্রশাসনের মাধ্যমে ফেরত দেওয়ার দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন জেলা বিএনপির সভাপতি এস এম শফিকুল আলম মনা।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ডুমুরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা খান আলী মুনসুর, মনিরুজ্জামান মন্টু, সাইফুর রহমান মিন্টু, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম নান্নু প্রমুখ।

আরও পড়ুন