নড়াইলে কুয়েত প্রবাসীকে হাতুড়িপেটা

আপডেট: 08:07:27 19/04/2018



img

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইল সদর উপজেলার বুড়িখালী গ্রামের মোহাম্মদ আলী (৫০) নামে এক কুয়েত প্রবাসীকে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে প্রতিপক্ষরা।
গ্রামের একটি হাফেজিয়া মাদরাসা পরিচালনা কমিটি গঠন ও জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে আহতের পরিবারের সদস্যরা দাবি করেছেন।
মোহাম্মদ আলী বুড়িখালী গ্রামের মৃত উতার উদ্দিন শেখের ছেলে। বর্তমানে তিনি নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, মোহাম্মদ আলী বৃহস্পতিবার বিকেল চারটার দিকে গ্রামের একটি মিলাদ মাহফিলে অংশগ্রহণ শেষে নড়াইল শহরের নিজ বাসায় ফিরছিলেন। পথে নড়াইল শহরসংলগ্ন মালিবাগ মোড়ে প্রতিপক্ষের লোকজন মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি পেটায় তাকে। এসময় তার সঙ্গে থাকা সীমখালী গ্রামের শুকুর আলী ঠেকাতে ব্যর্থ হন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় আহত মোহাম্মদ আলীকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আহত মোহাম্মদ আলী জানান, বুড়িখালী উত্তরপাড়া হাফিজিয়া মাদরাসার সভাপতি ছিলেন তার চাচা আবদুল মালেক শেখ। তিনি প্রায় এক বছর আগে মারা যাওয়ার কারণে ওই মাদরাসার সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার জন্য একটি পক্ষ অনুরোধ করছেন। অপর দিকে একই গ্রামের আইয়ুব আলী নামে এক ব্যক্তি সভাপতি প্রার্থী হওয়ায় বিরোধ চলছে। এছাড়া একই গ্রামের সিদ্দিকের সঙ্গে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ থাকায় প্রতিপক্ষ সংঘবদ্ধ হয়ে তাদের লোকজন নিয়ে এ হামলা চালিয়েছে।
আহতের স্ত্রী কেয়া বেগম বাদী হয়ে তার স্বামীর ওপর হামলার অভিযোগে ছয়জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে নড়াইল সদর থানায় মামলা করেছেন।
তবে অভিযুক্ত আইয়ুব আলী বলেন, ‘মোহাম্মদ আলী আর আমি পরিচয়ে শ্যালক-ভগ্নিপতি। মাদরাসার কমিটি গঠন নিয়ে তার সাথে একটু তর্ক-বিতর্ক হয়েছিল। এ ছাড়া আর কোনো ঝামেলা আমাদের মাঝে নেই। কে বা কারা এ হামলা চালিয়েছে তা আমাদের জানা নেই। ঘটনার সময় আমি গ্রামে অবস্থান করছিলাম।’
নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন জানান, হামলার ঘটনায় নড়াইল সদর থানায় একটি মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন