নড়াইলে শরিক দলের প্রার্থী চান না আওয়ামী নেতারা

আপডেট: 05:22:45 14/10/2018



img

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইলে আওয়ামী লীগ বাদে অন্য কোনো শরিক দলকে মনোনয়ন না দিতে একমত হয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সব স্তরের নেতারা।
শনিবার বিকেল সাড়ে চারটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে বিশেষ বর্ধিত সভায় এ সিদ্ধান্ত। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস।
বক্তব্য দেন নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. কবিরুল হক মুক্তি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাদের মধ্যে প্রতিযোগিতা থাকতে পারে, গ্রুপিং থাকতে পারে। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের মধ্যে যাদের মনোনয়ন দেবেন গ্রুপিং ভুলে সবাই তাদের পক্ষে কাজ করবেন। দশম সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির শেখ হাফিজুর রহমানকে নড়াইল-২ আসনে নেত্রী মনোনয়ন দিয়েছিলেন। সবাই মিলে তাকে নির্বাচিত করা হয়েছিল। কিন্ত এমপি হয়ে শেখ হাফিজ নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের কোনো নেতকর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখেননি।
এই বর্ধিত সভার সিদ্ধান্ত রেজুলেশন করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়।
বর্ধিত সভায় বক্তারা আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইলের সংসদীয় দুটি আসনে কোনো ‘অতিথি পাখি’কে মনোনয়ন না দেওয়ার দাবি জানান।
তাদের মতে, নির্বাচন এলেই অতিথি পাখিদের আগমন ঘটে। কিন্তু নির্বাচন চলে গেলে এবং দলের দুর্দিনে কাউকেই পাশে পাওয়া যায় না। এসব অতিথি পাখির কারণে দলে বিভাজন সৃষ্টি হয়ে অন্তর্কলহ বেড়ে যায়।
বর্ধিত সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগ নেতারা এই সব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন