খুলনায় দেড় হাজার কেজি চিংড়ি জব্দ, চারজনের সাজা

আপডেট: 10:51:39 22/09/2017



img
img

খুলনা অফিস : নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে খুলনায় দুটি চিংড়ি-আড়তে অভিযান চালানো হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যার পর নগরীর নতুন বাজার এলাকায় চালানো অভিযানে এক হাজার ৩০০ কেজি চিংড়ি জব্দ করা হয়।
ইরান ফিশ এন্টারপ্রাইজ ও মাসুমা ফিশ এন্টারপ্রাইজ নামে আড়ত দুটোতে রক্ষিত এই চিংড়িতে জেলি পুশ করা হয়েছিল। এছাড়া অভিযানকালে আরো প্রায় ২০০ কেজি চিংড়িও জব্দ করা হয়।
অভিযান পরিচালনা করেন খুলনা জেলা প্রশাসনের  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসেন।
তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইরান ফিশ এন্টারপ্রাইজ ও মাসুমা ফিশ এন্টারপ্রাইজের আড়তে অভিযান চালানো হয়। চিংড়িতে জেলি পুশ করার সময় হাতে-নাতে ধরা হয় কয়েকজনকে। এ সময় জেলি পুশ করা প্রায় এক হাজার ৩০০ কেজি চিংড়ি জব্দ করা হয়। পরে সেগুলো নিয়ম-মাফিক ধ্বংস করা হয়। এছাড়াও আড়ত দুটি থেকে আরো প্রায় ২০০ কেজি চিংড়ি জব্দ করা হয়; যেগুলোতে অপদ্রব্য পুশ করা হয়নি। এই ২০০ কেজি চিংড়ি সরকারি পাঁচটি এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।
অভিযানকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইরান এন্টারপ্রাইজকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এছাড়া একজনকে ১৫ দিনের ও তিনজনকে সাত দিনের বিনাশ্রম জেল দেওয়া হয়। মাসুমা এন্টারপ্রাইজের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করার নির্দেশ দিয়েছেন ম্যাজিস্ট্রেট।
তিনি জানান, এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী চিংড়ির ওজন বাড়ানোর জন্য মাথার দিকে জেলি পুশ করে; যা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর। আইনে এটি নিষিদ্ধ। 
চিংড়িতে জেলি পুশের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসন ও আইন-শৃংখলা বাহিনীর এই অভিযান চলবে বলে জানান ম্যাজিস্ট্রেট।
অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করেন ক্যাপ্টেন মো. মোজাম্মেল হোসেন, মৎস্য পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর খুলনার পরিদর্শক লিপ্টন সর্দার ও র‌্যাব-৬ এর সদস্যরা।

আরও পড়ুন