খুলনায় ২৬ পৌরসভার কর্মচারীদের মানববন্ধন

আপডেট: 09:24:25 03/04/2017



img

খুলনা অফিস : সোমবার নগর ভবনের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে খুলনা সিটি করপোরেশনসহ খুলনা বিভাগের ২৬টি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বেতন-ভাতার শতভাগ রাজস্ব খাত থেকে প্রাপ্তি ও পেনশন প্রথা চালুর দাবিতে এই কর্মসূচি পালিত হয়।
মানববন্ধন শেষে বিভাগীয় কমিশনারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হয়।
মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, পরিকল্পিত নগর গড়ে তোলাসহ পৌরবাসীর জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে অবদান থাকলেও পৌরসভার নিজস্ব আয় অপ্রতুল হওয়ায় দুই থেকে ১৮ মাস পর্যন্ত বেতন-ভাতা বকেয়া থাকছে। অত্যন্ত অমানবিক এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সক্ষম করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই।
বক্তারা সংবিধানের ৫৯ (২ক) অনুযায়ী নির্বাহী বিভাগের চারটি প্রতিষ্ঠানের সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মতো পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতাসহ সব সুবিধা দেওয়ার দাবি জানান।
মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন কেসিসি কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি উজ্জ্বলকুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক শেখ মহিউদ্দিন হোসেন, কেসিসি এমপ্লয়ীজ ইউনিয়নের সভাপতি সোবহান আলী, সাধারণ সম্পাদক দুলাল হোসেন রাজা, বাংলাদেশ পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশনের খুলনা বিভাগীয় কমিটির সভাপতি অজিতকুমার হালদার, সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, ঝালকাঠি পৌরসভার মো. নুরুল ইসলাম, নড়াইল পৌরসভার সুজন আলী, ঝিনাইদহ পৌরসভার আব্দুল হান্নান, বাগেরহাট পৌরসভার এম এ সালাম ও রঞ্জনকান্তি গুহ, যশোর পৌরসভার শহিদুল ইসলাম, কুষ্টিয়া পৌরসভার একরামুল হক, মেহেরপুর পৌরসভার মেহেদী হাসান মামুন, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মো. আলী হোসেন, কোটচাঁদপুর পৌরসভার অহিন্দুনাথ বিশ্বাস, নওয়াপাড়া পৌরসভার রিনা বেগম প্রমুখ।

আরও পড়ুন