উত্তর-দক্ষিণে বিদ্যুৎ বিপর্যয়

আপডেট: 06:58:51 02/05/2017



img

খুলনা অফিস : ন্যাশনাল গ্রিড ফেল করায় বিদ্যুতের বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে গোটা দক্ষিণ ও উত্তরাঞ্চলে। এ বিষয়ে পিজিসিবি ও ওজোপাডিকো কর্মকর্তারা দুই ধরনের তথ্য দিয়েছেন।
ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান প্রকৌশলী (ওজোপাডিকো)প্রধান প্রকৌশলী হাসান আলী তালুকদার জানান, ভেড়ামারা বিদ্যুৎকেন্দ্রে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে সমস্যা সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে খুলনা ও বরিশাল বিভাগ ও বৃহত্তর ফরিদপুর- মিলিয়ে মোট ২১ জেলা এবং রাজশাহী বিভাগের কয়েক জেলা বেলা ১১টা ২৮ মিনিটে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমের ২১ জেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ নিয়ন্ত্রণ করে ওজোপাডিকো; যার সদর দপ্তর খুলনায়।
তিনি জানান, বিষয়টি ইতিমধ্যে ঢাকায় জানানো হয়েছে। ঘণ্টাখানেকের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসতে পারে বলে তিনি আভাস দেন।
এদিকে বিডিনিউজ জানায়, ঝড়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডের একটি সঞ্চালন লাইন মেরামতের মধ্যেই আরেকটি সঞ্চালন লাইন ‘ট্রিপ করায়’ দেশের উত্তর ও দক্ষিণ জনপদের বিস্তীর্ণ এলাকা বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে।
খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী ও রংপুর জোনে বিদ্যুৎ সরবাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সেসব এলাকার সব বিদ্যুৎকেন্দ্রে উৎপাদনও বন্ধ হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশের (পিজিসিবি) সহকারী ম্যানেজার (জনসংযোগ) এ বিএম বদরুদ্দোজা খান।
তিনি বলেন, “লাইন মেরামতের কাজ চলছে। আশা করি সন্ধ্যার মধ্যে সব এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করা যাবে।”
আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের এমডি সাজ্জাদুর রহমান জানান, কালবৈশাখী ঝড়ে সোমবার রাতে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার কালীপুরে একটি বিদ্যুতের টাওয়ার ভেঙে পড়ে ২৩০ কিলোভোল্টের সরবরাহ লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
২৩০ কেভি সঞ্চালন লাইন হাই ভোল্টেজ সঞ্চালন লাইনের মধ্যে পড়ে। সারাদেশে পিজিসিবির তিন হাজার ১৮৫ সার্কিট কিলোমিটার ২৩০ কেভি সঞ্চালন লাইন রয়েছে।
ওই লাইন মেরামত করার সময় মঙ্গলবার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে ঘোড়াশাল-ঈশ্বরদী সঞ্চালন লাইন ‘ট্রিপ’ করলে এর সঙ্গে যুক্ত রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চল বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে।
ওই দুই জোনের বিদুৎ কেন্দ্রগুলোতে উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেলে খুলনা ও বরিশাল জোনেও সরবরাহ ও উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায় বলে পিজিসিবির বদরুদ্দোজা খান জানান।

এদিকে, আমাদের স্টাফ রিপোর্টার জানান, সকাল থেকেই যশোর অঞ্চলে বার বার বিদ্যুৎ যাওয়া-আসা করছে। বেলা ২টায় এ রিপোর্ট লেখার সময় বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়েছে। তবে বিদ্যুৎ নিরবচ্ছিন্ন থাকবে কি-না তা নিশ্চিত করতে পারছেন না সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুন