খুনির ফাঁসির আদেশ, ১১ জনের বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড

আপডেট: 02:30:19 23/07/2018



img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার কলেজছাত্র হাবিবুল্লাহ সরদার হত্যা মামলায় একজনকে মৃত্যুদণ্ড ও দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এ মামলায় আরো নয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। আর খালাস পেয়েছেন ২৩ আসামি।
সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক অরুণাভ চক্রবর্তী সোমবার জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।
ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ডা. সাইফুল্লাহ পলাতক রয়েছেন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত অপর দুই আসামি হলেন মামুন ও জিয়ারুল ইসলাম।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ১১ জুলাই কৃষিজমিতে গভির নলকূপের পানি বিতরণকে কেন্দ্র করে আশাশুনি উপজেলার বাঁকড়া গ্রামের দুই পাড়ার বাসিন্দাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের হামলায় পানি বিতরণ কমিটির সভাপতি আলিমুদ্দিন সরদারের ছেলে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের সম্মান বিভাগের ছাত্র হাবিবুল্লাহ সরদার নিহত হন। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় পুলিশ ৩৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়।
বিচারে আদালত ১২ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডাদেশ দেন। দণ্ডিত অন্যরা হলেন মো. জুলফিকার, আবু হাসান, আবদুল মালেক, আবদুস সালাম, রব্বানি, বেল্লাল হোসেন, জামান, রহিম এবং পিকলু। এর আগে গত ৫ জুলাই মামলার তিনজন আসামি নিজামুদ্দিন সরদার, তার ভাই খায়রুল্লাহ সরদার ও তাদের বোন জামাই রফিকুল ইসলাম আদালত চলাকালে পালিয়ে যান।
সরকার পক্ষে এ মামলা পরিচালনা করেন পিপি অ্যাডভোকেট তপনকুমার দাস। আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট হায়দার আলিসহ বেশ কয়েকজন আইনজীবী।

আরও পড়ুন