একতা হাসপাতাল কর্মীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

আপডেট: 09:36:01 11/08/2018



img

স্টাফ রিপোর্টার : শনিবার বিকেলে যশোর সদরের নূরপুর পশ্চিমপাড়া এলাকার একটি বাড়ি থেকে দাহিনূর রহমান দাহিন (২২) নামে এক যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
পুলিশের ধারণা, দুই বা তিনদিন আগে হয়তো তিনি খুন হয়েছেন।
বাড়িমালিক দবির মোল্যা জানান, দাহিন ছয় মাস আগে তার বাসায় ভাড়াটে হিসেবে ওঠেন। তিনি যশোর শহরের একতা হাসপাতালে ওয়ার্ডবয় হিসেবে কাজ করতেন। ৮-১০ দিন আগে বিয়ে সংক্রান্ত ব্যাপারে মেয়েপক্ষ তার সম্বন্ধে খোঁজখবর নিতে আসে। ছেলেটি ফেসবুক ব্যবহার করতেন এবং তার রুমে প্রায়ই তিন-চার বন্ধু এসে আড্ডা দিতেন। গত ৯ আগস্ট সকাল পর্যন্ত তিনি কর্মক্ষেত্রে ডিউটি করেছেন। এরপর তার সাথে আর যোগাযোগ হয়নি।
তিনি বলেন, ‘আজ দুপুরে প্রতিবেশীরা ওই রুম থেকে পচা গন্ধ আসছে জানালে আমরা সেখানে যাই এবং তার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখি। পরে পুলিশকে জানালে তারা এসে মরদেহ উদ্ধার করে।’
যশোর কোতয়ালী থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) আবুল বাশার জানান, খবর পেয়ে বিকেল পাঁচটার দিকে তারা ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করেছেন। ওই যুবক যে ঘরে থাকতেন তার একটি দরজা তালাবদ্ধ থাকলেও আরেকটি খোলা ছিল। মরদেহটির পেট ফুলে গেছিল এবং চোখ দুটো বের হয়ে যাওয়ার মতো। তার শরীরে, মেঝেতে এবং দেয়ালে রক্ত পাওয়া গেছে। মরদেহটি একটি কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা ছিল।
যশোরের এডিশনাল এসপি (ক সার্কেল) নাইমুর রহমান জানান, কারা কী কারণে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে, তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। তবে, ফেসবুকে চ্যাটিং এবং তার ঘরে কারা আসতো- এসব বিষয় সামনে রেখে তদন্ত করা হবে।
নিহত দাহিন যশোরের শার্শা উপজেলার কন্যাদহ গ্রামের আব্দুল মালেক ও মিরা বেগমের ছেলে।

আরও পড়ুন