শিশু ধর্ষণ মামলার আসামিরা অধরা, বাদীকে 'হুমকি'

আপডেট: 04:03:29 19/08/2018



img

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : মহেশপুরের পল্লীতে একটি শিশু ধর্ষণ ও ধর্ষণের দৃশ্য ক্যামেরায় ধারন মামলার আসামিরা ২০ দিনেও গ্রেফতার হয়নি। আসামিরা বাদীকে মামলা তুলে নিতে এলাকার প্রভাবশালীদের মাধ্যমে নানা হুমকি দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, আসামিরা পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা যায়নি, তবে চেষ্টা চলছে।
ধর্ষিতা শিশুর পরিবারের সদস্যরা জানান, গত ২ মার্চ রাত দশটার দিকে শিশুটি বাইরে এলে একই গ্রামের লম্পট জহিরুল ইসলাম শিশুটিতে মুখ বেঁধে পাশের বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় ধর্ষণের দৃশ্য জহিরুল ইসলাম তার মোবাইল ফোনে ধারনও করে। পরে ধর্ষণের দৃশ্য দেখিয়ে লম্পট জহিরুল ইসলাম দিনের পর দিন তাকে ধর্ষণ করতে থাকে।
সবশেষ গত ১৪ জুলাই রাত আটটার দিকে আবার পাশের বাগানে নিয়ে ধর্ষণের সময় শিশুটি চিৎকার করলে বাড়ির পাশের প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে। এসময় লম্পট জহিরুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।
এঘটনায় শিশুটির মা ২৮ জুলাই চারজনকে আসামি করে মহেশপুর থানায় একটি মামলা করেন।
পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করছেন, মামলা রুজুর পর থেকে আসামি ও তাদের লোকজন মামলা তুলে নিয়ে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছে। হুমকির ঘটনায় ১২ আগস্ট মহেশপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করা হয়েছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই কামাল হোসেন জানান, আসামিরা ঘটনার পর থেকেই এলাকাছাড়া। যে কারণে আসামিদেরকে গ্রেফতার করতে একটু সমস্য হচ্ছে। তবে আসামিরা যেখানেই থাক না কেনো ধরা পড়তেই হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পুলিশ কর্মকর্তা কামাল।

আরও পড়ুন