মারা গেল সেই বায়েজিদ

আপডেট: 02:41:46 12/12/2017



img
img

শিমুল হাসান, মাগুরা : মাগুরায় বিরল প্রজেরিয়া রোগে আক্রান্ত ৮০-৯০ বছরের বৃদ্ধের মতো দেখতে সেই শিশু বায়েজিদ মারা গেছে।
সোমবার সন্ধ্যায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে। তার বয়স হয়েছিল সাড়ে পাঁচ বছর।
বায়োজিদের বাবা লাবলু শিকদার জানান, পুরুষাঙ্গে চামড়া বেড়ে প্রস্রাব বন্ধ হয়ে পেট ফুলে যাওয়ায় রোববার রাত সাড়ে ১২টার দিকে বায়েজিদকে মাগুরা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার আরো অবনতি হলে ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে সে মারা যায়।
মঙ্গলবার সকালে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার খালিয়ায় নিজ গ্রামে বায়েজিদকে দাফন করা হবে।
বায়েজিদরেক নিয়ে সুবর্ণভূমিসহ গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে তা স্বাস্থ্য বিভাগের নজরে আসে। মাগুরা সদর হাসপাতালে গঠিত হয় মেডিকেল বোর্ড। ওই বোর্ড তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পিজি হাসপাতালে পাঠায়। অনেকে তার চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তার হাত বাড়ান। ঢাকায় দেড় মাস চিকিৎসা করালেও তার শরীরিক অবস্থার তেমন কোনো পরিবর্তন না হওয়ায় তাকে বাড়ি ফেরত আনা হয়।
তার পর থেকে সে আরো অসুস্থ হয়ে পড়ে। এঅবস্থায় সে মাগুরা সদর হাসপাতালের মেডিসিন চিকিৎসক দেবাশিষ বিশ্বাসের অধীনে চিকিৎসাধীন ছিল।
ডা. দেবাশিষ বিশ্বাস জানান, পুরুষাঙ্গের চামড়া বেড়ে তার প্রস্রাবের রাস্তা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এমন অবস্থায় অস্ত্রোপচার প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বায়েজিদ যেহেতু জন্মগতভাবে জটিল প্রজেরিয়া রোগে আক্রান্ত, সে কারণে তার জন্য এ অস্ত্রোপচার ছিল অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

আরও পড়ুন