বাস চাপায় মা-ছেলের মৃত্যু, রাস্তা অবরোধ

আপডেট: 04:21:31 10/11/2018



img
img

মাগুরা প্রতিনিধি : বাসের চাপায় মাগুরা সদর উপজেলার শত্রুজিৎপুর গ্রামের একই পরিবারের মা-ছেলের মৃত্যুর ঘটনায় শনিবার সকাল থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত মাগুরা-নড়াইল সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন এলাকাবাসী।
এতে মাগুরা-নড়াইল সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। চরম দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ।
স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্য রোমানা বেগম জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর শত্রুজিৎপুর গ্রামের রিকশাচালক বিপুল হোসেন তার স্ত্রী আলেয়া বেগম ও ছেলে আল আমিনকে নিজ অটোকশাায় চড়িয়ে মাগুরা শহর থেকে গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে পাজাখোলা এলাকায় একটি দ্রুতগামী বাস তাদের রিকশাটিকে চাপা দেয়। এতে বিপুলের স্ত্রী আলেয়া বেগম ওই রাতে ও ছেলে আল আমিন শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজে মারা যান। গুরুতর আহত বিপুল হোসেন বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
শনিবার সকালে নিহত আল আমিনের মৃতদেহ ঢাকা থেকে মাগুরা সদরের শত্রুজিৎপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে পৌঁছায়। গ্রামবাসী এ ঘটনার জন্য দায়ী বাসচালকের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে রাস্তায় নেমে আসেন। তারা কফিন ও গাছের গুঁড়ি ফেলে মাগুরা-নড়াইল সড়ক বন্ধ করে দেন। সকাল আটটা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত ওই সড়কে বাসসহ যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।
বাস মালিক সমিতির কর্মকর্তারা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে তিন লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের আশ্বাস ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত চালককে দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি করার প্রতিশ্রুতি দিলে দুপুর দুইটার পর থেকে ওই সড়কে আবার বাস চলাচল শুরু হয়।
মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম জানান, বাসটির চালককে গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন