'একাত্তরের পরাজিত সৈনিকরা সক্রিয়'

আপডেট: 03:18:09 16/04/2018



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরে মুক্তিযোদ্ধারা বলেছেন, একাত্তরের পরাজিত সৈনিকরা সক্রিয় হয়ে স্বাধীনতা বিপন্ন করার জন্য গভীর ষড়যন্ত্র করছে। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই ষড়যন্ত্রে পা দেবেন না- দেশের জনগণের সেই বিশ্বাস আছে।
সোমবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে মুজিব সড়কে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে বক্তারা একথা বলেন।
মুক্তিযোদ্ধারা জাতির প্রয়োজনে ঝাঁপিয়ে পড়তে প্রস্তুত উল্লেখ করে তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। সেখানে কতিপয় অপশক্তি দেশের মধ্যে অরাজকতা শুরু করার চেষ্টা করছে। যা কখনো সম্ভব না হবে না।
সম্মানহানি না করার অনুরোধ জানিয়ে বক্তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের যে কোটা দেওয়া হয়েছে সেটা কেড়ে নিয়ে তাদেরকে অসম্মান করা হয়েছে। জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা তা কখনো করতে পারেন না। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির পক্ষে তা কখনো সম্ভব না।
তারা অবিলম্বে মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা ফিরিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করেন।
মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা বহালের দাবিতে যশোরের ‘মুক্তিযোদ্ধা ও সন্তান কমান্ড’ আয়োজিত এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, মুক্তিযুদ্ধকালে মুজিব বাহিনীর প্রধান আলী হোসেন মনি, সাবেক সংসদ সদস্য ময়নুদ্দিন মিয়াজী, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রবিউল আলম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রাজ্জাক, মুজহারুল হক মন্টু, হায়দার গনি খান পলাশ, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার খায়রুজ্জামান রয়েল, কাজী আব্দুস হেলাল, নজরুল ইসলাম চাকলাদার মন্টু, একরাম-উদ-দ্দৌলা, রশিদুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড যশোর জেলা শাখার আহ্বায়ক কামরুজ্জামান প্রমুখ।
মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন